শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯, ৩ কার্তিক ১৪২৬

২০ দলীয় জোটের বৈঠক শেষ

আবরার হত্যার নিন্দা-খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ পাঁচ দফা দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১১ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার ১০:৫৩ এএম

আবরার হত্যার নিন্দা-খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ পাঁচ দফা দাবি

ঢাকা : জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নুর হোসাইন কাসেমীর সভাপতিত্বে সভা করেছে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট।

বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬টায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এই প্রথম কাসেমীর সভাপতিত্বে সভা করল ২০ দল।

সভায় প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক ভারত সফর ও চুক্তি, বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা এবং খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়ে পাঁচ দফা দাবি জানিয়েছে ২০ দলীয় জোট।

পাঁচ দাবিগুলো হল

(১) প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক ভারত সফরকালে তিস্তার পানিসহ বাংলাদেশের স্বার্থে কোনো অর্জন ছাড়াই ফেনী নদীর পানি প্রদান, চট্টগ্রাম ও মংলাবন্দর নির্বিঘ্নে ব্যবহারের অনুমতি, আমদানিকৃত এলপিজি ভারতে রফতানি এবং সমুদ্র উপকূলে যৌথ নজরদারির বিষয়ে যে সব চুক্তি ও সমঝোতা হয়েছে- ২০ দলীয় জোটের এই সভা তার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে দেশ ও দেশের জনগণের স্বার্থবিরোধী এ সব চুক্তি ও সমঝোতা বাতিলের দাবি জানাচ্ছে।

(২) ২০ দলীয় জোটের এই সভা গত ৬ অক্টোবর বুয়েটের মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের নৃশংস হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এই হত্যার জন্য দায়ী সব অপরাধীর দৃষ্টান্তমূলক কঠোর শাস্তি দাবি করছে।

(৩) সভা গণতন্ত্রের মা ও ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে তার প্রাপ্য জামিন না দিয়ে প্রচলিত আইন অগ্রাহ্য করা এবং গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনকে দুর্বল রাখার সরকারি অপচেষ্টার তীব্র নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে তার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করছি।

(৪) সভায় দেশবিরোধী চুক্তি বাতিল ও আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে বিএনপি কর্তৃক ১২ ও ১৩ অক্টোবর দেশের সব বিভাগ ও জেলা সদরে গণসমাবেশ অনুষ্ঠানের কর্মসূচির প্রতি সমর্থন জানিয়ে এ সব সভায় উপস্থিত হয়ে ২০ দলীয় জোটের নেতারা সংহতি জানাবেন বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

(৫) সভায় আগ্রাসী শক্তির বিরুদ্ধে প্রতিবাদকারী প্রথম শহীদ আবরার ফাহাদের স্মরণে সভা অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। আগামী মঙ্গলবার সকাল ১০টায় ঢাকায় এই স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হবে।

১৫ অক্টোবর আবরারের স্মরণসভা করবে ২০ দল : আগ্রাসী শক্তি ও দেশবিরোধী চুক্তির বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনের সন্ত্রাসীদের হাতে নিহত বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদের স্মরণসভা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট।

এদিকে বিশদলীয় জোটের অন্যতম শরীক বাংলাদেশ জাতীয় দলের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সৈয়দ এহসানুল হুদা বৈঠক শেষে জানান, ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনের নামধারী সন্ত্রাসীরা বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে পিটিয়ে পৈচাশিকভাবে হত্যা করেছে। এই ফাহাদ দেশের পক্ষে ও আগ্রাসী শক্তির বিপক্ষে প্রথম শহীদ। বিশদলীয় জোট এই দেশপ্রেমিক শহীদকে স্মরণ করবে। সেই আলোকে আগামী ১৫ অক্টোবর রাজধানীতে আবরার স্মরণসভা করা হবে।

তিনি জানান, এখনও ভেনু নির্ধারণ হয়নি। তবে যেকোনো একটি মিলনায়তনে এ সভাটি করবে ২০ দল। এছাড়াও, জোট নেতা ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির চলমান বিভাগীয় সমাবেশে বিশদলীয় জোটের শরিকরা যার যার অবস্থান থেকে সংহতি প্রকাশ করবেন।

বাংলাদেশ জাতীয় দলের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সৈয়দ এহসানুল হুদা বৈঠকে জোট নেত্রীর মুক্তি দাবি, আগ্রাসী শক্তি বিরোধী আবরারের মৃত্যুকে শহীদ ও ক্ষমতাসীনদের সন্ত্রাসী এবং দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান।

বৈঠকে ভারতের সঙ্গে সমস্ত দেশবিরোধী চুক্তিরও বাতিল দাবি করা হয়।

এ সময় বৈঠকে অংশ নেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, জামায়াতে ইসলামীর মাওলানা আবদুল হালিম, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) মোস্তফা জামাল হায়দার, এনপিপির ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, লেবার পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান, ন্যাপ ভাসানীর আজহারুল ইসলাম, জাগপার খন্দকার লুৎফর রহমান ও আসাদুর রহমান খান, ডিএলের সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি, এনডিপির কারী আবু তাহের, মুসলিম লীগের শেখ জুলফিকার বুলবুল, জমিয়তে ওলামায়ে ইসলামের নুর হোসেন কাশেমী বাংলাদেশ জাতীয় দলের চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট সৈয়দ এহসানুল হুদা, কল্যাণ পার্টির মাহমুদ খান ও বাংলাদেশ ন্যাপের সাওন সাদেকি। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন জমিয়তে ওলামায়ে ইসলামের নেতা নুর হোসেন কাশেমী।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue