শনিবার, ০৬ জুন, ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

আমার টিমের প্রত্যেকটা ছেলেই পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে: মাশরাফি (ভিডিও)

ক্রীড়া প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৯ এপ্রিল ২০১৯, সোমবার ০৪:৪৪ পিএম

আমার টিমের প্রত্যেকটা ছেলেই পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে: মাশরাফি (ভিডিও)

ছবি সংগৃহীত

ঢাকা: দেশের ক্রীড়াঙ্গণের ইতিহাসে সব থেকে জনপ্রিয় ক্রীড়াবিদ হিসাবে দেখা হয়ে থাকে মাশরাফি বিন মুর্তাজাকে। একাধারে তিনি বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক এবং জাতীয় সংসদ সদস্য। যা বিশ্বের বিরল ঘটনা। ম্যাশের বন্ধুবৎসল ও দানশীলতা এখন সর্বব্যাপী। এবার জানা গেল তিনি ধর্মানুরাগীও।  

মাশরাফি কন্য হুমায়রার কণ্ঠে তিলাওয়াত:

গেল ফেব্রুয়ারি মাসে এক অনুষ্ঠানে মাশরাফি জানিয়েছিলেন, আমার সাত বছর বয়সী মেয়ে হুমায়রা বিন মাশরাফি কুরআনের ছাত্রী। তার (মেয়ে) জন্য সবাই দোয়া করবেন। এবার কোরআনিক ভয়েস প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালেতে হুমায়রার তিলাওয়াতে মুগ্ধ হয়ে পাঁচ হাজার টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেন অনুষ্ঠানের সভাপতি।

গেল ২৭ এপ্রিল বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে সেই অনুষ্ঠানে মাশরাফি বিন মুর্তাজা বলেন, ‘আর একটা কথা না বললেই নয় যে, আগেরবারও বলেছিলাম এবারও বলছি আমাদের দেশের অনেক হাফেজ বিদেশে গিয়ে দেশের সম্মান বয়ে নিয়ে আসছে।’

‘আমাদের সবাই চেনে, টিভিতে দেখছে বা ফেসবুকিং করছে আমরা তো কোথাও চ্যাম্পিয়ন হতে পারিনি এখনও। তারপরও আমাদের চ্যাম্পিয়ান বানানো হচ্ছে।’

‘আমরা কোথাও থেকে এখনও বড় কোনো টুর্নামেন্ট জিতে আসতে পারিনি। কিন্তু আজকে আলহামদুলিল্লাহ, এরা বিদেশে গিয়ে চ্যম্পিয়ান হয়ে আসছে, রানার্সআপ হয়ে আসছে। আমি আশা করি, ইশাআল্লাহ সবাই তাদের যথাযথ সম্মান করবে।’

মাশরাফি আরও বলেন, ‘এরা চ্যাম্পিয়ন হয়ে বিশেষ করে কোরান শরীফ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়ে বাংলাদেশের পতাকা বাইরে উড়াচ্ছে, এটা আমাদের জন্য অনেক গর্বের ব্যাপার।’

এ সময় জাতীয় ক্রিকেট দলের মুসলমান ক্রিকেটারদের নামাজ পড়ার প্রসঙ্গও তুলে ধরে মাশরাফি বলেন, ‘আরেকটা ব্যাপার আপনাদের সামনে বলতে চাই, আপনারা শুনলে হয়তোবা খুশি হবেন এই ম্যাসেজটা দিলে- আমাদের ক্রিকেট টিমের সবাই প্রত্যেকটা ছেলেই নামাজ পড়ি পাঁচ ওয়াক্ত ইনশাআল্লাহ এবং প্রায় সবাই ওমরা করে ফেলেছে।’

‘শুধু তাই না আমরা যখন বিদেশে থাকি তখন আমাদের ইমাম সাহেব থাকেন হয় মুশফিক না হয় মাহমুদুল্লাহ। আমরা জামাত করে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ি। আমাদের ক্রিকেটবোর্ড থেকে আলাদা রুম থাকে যাতে আমরা নামাজ পড়তে পারি।’

বলেন, ‘আপনারা সবাই দোয়া করবেন আমাদের জন্য। আমাদের ক্রিকেট টিম যাচ্ছে সামনে বিশ্বকাপ খেলতে, আমরা যেন ভালো কিছু করতে পারি, দেশের সম্মান বয়ে আনতে পারি, ইনশাআল্লাহ। আপনারাও ভালো থাকবেন। আপনাদের জন্যও দোয়া থাকবে।’

‘এই ধরনের অনুষ্ঠানে সবসময় থাকার চেষ্টা করি, আমি অবশ্যই চেষ্টা করবো বিশেষ করে কোরআন শরিফ প্রতিযোগিতায়, ইসলামিক অনুষ্ঠানে থাকার। আমি এখানে মাননীয় সংসদ সদস্য হিসেবে আসিনি বা ক্রিকেটার হিসেবে আসিনি, এখানে কোরান শরিফ প্রতিযোগিতা হচ্ছে, সব কিছুর ঊর্ধ্বে এটা আমার কাছে।’

ভিডিওতে দেখুন মাশরাফির পুরো বক্তব্য:

সোনালীনিউজ/ঢাকা/জেডআই