সোমবার, ২০ মে, ২০১৯, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

আলটিমেটাম দিয়ে অনশন স্থগিত রোকেয়া হলের পাঁচ ছাত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৫ মার্চ ২০১৯, শুক্রবার ১০:২২ এএম

আলটিমেটাম দিয়ে অনশন স্থগিত রোকেয়া হলের পাঁচ ছাত্রীর

ঢাকা : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হলের প্রভোস্টের পদত্যাগ ও হল সংসদ নির্বাচনের পুনঃতফসিল ঘোষণার জন্য ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিয়ে অনশন স্থগিত করেছেন ওই হলের পাঁচ ছাত্রী। অনশনের দ্বিতীয় দিনে বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) রাত সোয়া নয়টার দিকে তারা অনশন স্থগিত করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর গোলাম রাব্বানী, রোকেয়া হলের প্রভোস্ট জিনাত হুদা, ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক, জিএস গোলাম রাব্বানী, এজিএস সাদ্দাম হোসেন ও হলের টিউটররা এসে তাঁদের তুলে নেওয়ার আহ্বান জানান। পরে ছাত্রীরা ওই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেন। অনশনকারী ও আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, দুজন অনশনকারী অসুস্থ হওয়ার ২৪ ঘণ্টার জন্য অনশন স্থগিত করা হয়েছে।

এর আগে বুধবার রাত নয়টা থেকে চারটি দাবি নিয়ে অনশনে বসেছিলেন রোকেয়া হলের পাঁচ ছাত্রী। তারা অনশনে বসা শিক্ষার্থীরা হলেন ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের রাফিয়া সুলতানা, উইমেন অ্যান্ড জেন্ডার স্টাডিজ বিভাগের সায়েদা আফরিন, একই বিভাগের জয়ন্তী রেজা, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের শ্রবণা শফিক দীপ্তি ও ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের প্রমি খিশা।

রাফিয়া সুলতানা বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের প্যানেল থেকে রোকেয়া হল সংসদে সহসভাপতি (ভিপি), সায়েদা আফরিন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন থেকে হল সংসদে সহসাধারণ সম্পাদক (এজিএস), শ্রবণা শফিক দীপ্তি স্বতন্ত্র জোট থেকে ডাকসুর কেন্দ্রীয় সংসদে স্বাধীনতাসংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক পদে আর প্রমি খিশা হল সংসদে সদস্যপদে ছাত্র ফেডারেশনের প্রার্থী ছিলেন। জয়ন্তী রেজা প্রার্থী ছিলেন না। তাদের দাবিগুলো হলো- প্রভোস্ট জিনাত হুদার পদত্যাগ, হল সংসদের পুনর্নির্বাচন, মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং আন্দোলনকারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।

গত ১১ মার্চ দিনভর নানা নাটকীয়তার মধ্য দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদের নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত। এতে অনিয়ম ও ভোট কারচুপিসহ নানা অভিযোগে পুনর্নির্বাচনের দাবি উঠেছে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue