বুধবার, ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬

‘হটলাইন কমান্ডো’ নিয়ে দরজায় কড়া নাড়বেন সোহেল তাজ

আ.লীগের দুঃসময়ে পাশে থাকার ঘোষণা সোহেল তাজের

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৮ জুলাই ২০১৯, বৃহস্পতিবার ০৬:৪০ পিএম

আ.লীগের দুঃসময়ে পাশে থাকার ঘোষণা সোহেল তাজের

ঢাকা : ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও দেশের দুঃসময়ে পাশে থাকবেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদের সন্তান ও সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজ।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) রাজধানীতে সোনারগাঁও হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

এর আগে আওয়ামী লীগ সরকার আপনাকে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দিয়েছিল। আপনি অনেক দিন থেকে রাজনীতির বাইরে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি আগামীতে আপনাকে আরও কোনো রাজনৈতিক দায়িত্ব দেন, সেটা আপনি গ্রহণ করবেন কি না?

সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে হোসেল তাজ বলেন, ‘আমি শুধু এতটুকুই বলব, আমাদের পরিবার সবসময় আওয়ামী লীগের ও দেশের দুঃসময়ে দলের সঙ্গে ছিল এবং থাকবে। দেশের ও দলের দুঃসময়ে আমিও থাকব।’

দলের সুদিনের ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘সুদিনে আমি দলকে অন্যভাবে সাহায্য করছি। আমার এই মুভমেন্টে সবাইকে নিয়েই সোনার বাংলা গড়ার। এটা আমাদের দেশ, সবার দেশ।’

‘হটলাইন কমান্ডো’ নিয়ে দরজায় কড়া নাড়বেন সোহেল তাজ : দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদের সন্তান ও সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ হাজির হচ্ছেন- লাইফস্টাইল বিষয়ক রিয়্যালিটি শো ‘হটলাইন কমান্ডো’ নিয়ে।

এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্বাস্থ্য সমস্যা, ধর্ষণ সমস্যা, সড়কে অনিরাপত্তা, উদ্বাস্তু জীবন-যাপনসহ নানা সমস্যার সরাসরি সমাধান দিতে মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে কড়া নাড়বেন সোহেল তাজ। এটি প্রচারিত হবে আরটিভিতে।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) ঢাকায় প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ঘোষণা দেন।

অনুষ্ঠানের কার্যক্রমের ব্যাপারে সোহেল তাজ বলেন, আমাদের শোতে দর্শকরা কল করবেন। সেই কল গ্রহণ করে কী সমস্যা, তা সরেজমিনে জেনে নেব। এরপর সমাধানের জন্য সাহায্য করব। এটাই হচ্ছে শোয়ের থিম।

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, এমন একটা প্ল্যাটফর্ম করার চেষ্টা করছি, যেখানে থাকবে সাধারণ মানুষ ও সত্যিকারের সমস্যা। এখানে আমরা সমাধান দেব। এটা বিরক্তিকর হবে না। দুপক্ষের অংশগ্রহণ থাকবে। এ শো সবসময় মানুষকে সমাধান দেবে। সমাজকে সচেতন করবে। বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা তুলে ধরবে।

রাজনীতি থেকে বিদায় নেওয়া সোহেল তাজ বলেন, প্রোগ্রামটা হবে ইন্টারেক্টিভ। এটা শিশু থেকে শুরু করে বৃদ্ধ পর্যন্ত বুঝতে পারবেন এবং দেখার আগ্রহ পাবেন। এটা বিনোদনমূলকও হবে। আর শতভাগ সত্য তথ্য থাকবে। এমন ধারণা নিয়ে আমরা আসছি।

উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, ধরুন রাস্তার পাশে ছোট এক বাচ্চা বসে আছে, তার থাকার জায়গা নেই। এর সমাধান কী হতে পারে? আমরা টিম নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে রিয়েলিটিভাবে এর সমাধান তুলে ধরব। যেন সামাজিকভাবে আমরা এটি সমাধান করা যায়। একইসঙ্গে সড়ক নিরাপত্তা কীভাবে করা যায়, তাও তুলে ধরব।

তিনি আরও বলেন, অনেকে আমাদের আগেও এমন চেষ্টা করেছে। তবে তাদের চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। তারা পরিবর্তনশীল সমাজে মানুষের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করতে পারেনি। যে যেভাবে বোঝে তাকে ওইভাবেই বোঝাতে হবে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই