বুধবার, ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

অধিকাংশের ঠাঁই গণকবরে

ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্প-সুনামিতে নিহত বেড়ে ৮৪৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০২ অক্টোবর ২০১৮, মঙ্গলবার ০৯:৪৭ এএম

ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্প-সুনামিতে নিহত বেড়ে ৮৪৪

ঢাকা: উপর্যুপরি ভূমিকম্পের পর ইন্দোনেশিয়ার প্রধান দুটি শহরে ভয়াবহ সুনামির আঘাতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮৪৪ জনে দাঁড়িয়েছে। নিহতদের অধিকাংশরই ঠাঁই হয়েছে গণকবরে। কেননা লাশগুলো নেয়ার কোনো লোক নেই। কারণ বহু পরিবারের সবাই মারা গেছেন।

তিন দিন পেরিয়ে যাওয়ায় লাশগুলো থেকে উৎকট দুর্গন্ধ ছড়ানো শুরু হয়। তাই মৃত ব্যক্তিদের লাশ থেকে রোগ–জীবাণু ছড়ানোর আশঙ্কায় গণকবর দেয়া হয়।

সুলাওয়েসি প্রদেশের পালু শহরের পাহাড়ের উপরে গণকবর তৈরি করেন স্বেচ্ছাসেবীরা। পরে মৃতদেহ নিয়ে একের পর এক ট্রাক এসে উপস্থিত হয় সেখানে। আশ্রয় শিবিরগুলিতে আহতদের শয্যার পাশে পড়ে রয়েছে মৃতদেহের সারি।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বিপর্যয়ের পর তিন দিন কাটলেও সুলাওয়েসি দ্বীপের কিছু প্রত্যন্ত অঞ্চলে এখনো যোগাযোগ করা হয়নি। তাই সেখানে ভয় আছে যে মৃত্যুর সংখ্যা আরও বেড়ে যেতে পারে।

এদিকে, ভারী যন্ত্রপাতির অভাবে ধ্বংসাবশেষের নিচে আটকে থাকা জীবিতদের উদ্ধারের কাজকে বাধগ্রস্ত করছে।

গত শুক্রবার (২৮ সেপ্টেম্বর) শক্তিশালী ৭.৫ মাত্রার ভূমিকম্পের পরেই আছড়ে পড়ে ৩ মিটার উচু (১০ ফুট) সুনামি।

মার্কিন ভূতাত্বিক জরিপ সংস্থা ইউএসজিএস জানিয়েছে, স্থানীয় সময় শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টার একটু আগে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। ভূপৃষ্ঠ থেকে এর গভীরতা ছিল ১০ কিলোমিটার।

ইন্দোনেশিয়ার দুর্যোগ প্রশমন সংস্থার মুখপাত্র সুতপো পারু নাগরোহো জানিয়েছেন, সুলাওয়েসি প্রদেশের রাজধানী পালু, ডোঙ্গালা ও অন্যান্য কয়েকটি উপকূলীয় এলাকায় তিন মিটার উচ্চতার সুনামি আছড়ে পড়ে।


সোনালীনিউজ/ঢাকা/আকন

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue