শুক্রবার, ২১ জুন, ২০১৯, ৮ আষাঢ় ১৪২৬

ঈদের পাঞ্জাবী কিনে বাড়ি ফেরা হলো না কিশোরের

কক্সবাজার প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৬ মে ২০১৯, রবিবার ০৬:০২ পিএম

ঈদের পাঞ্জাবী কিনে বাড়ি ফেরা হলো না কিশোরের

ছবি সংগৃহীত

কক্সবাজার: শেষ পর্যায়ে চলে এসেছে রোজা। আর মাত্র কয়েক দিন পরেই আসছে খুশির ঈদ। সেই আনন্দে আত্বহারা শিশু-কিশোররা। চলছে পছন্দের কেনা-কাটা। কক্সবাজারের চকরিয়ার ছেলে আনস ইব্রাহিম ঈদের কেনা-কাটা করতে গিয়েছিল চকরিয়া পৌর সদরের ওয়েষ্টার্ণ প্লাজা। কিন্তু বাড়ি ফেরা হলো না এই কিশোরের।  

কেনাকাটা করে বাড়ি ফেরার পথে দূর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে নিহত হয়েছে ১৭ বছরের কিশোর ইব্রাহিম। এ সময় মো. আব্দুল্লাহ নামে অপর একজন আহত হয়। ছুরিকাঘাতে নিহত আনাস ইব্রাহিম চকরিয়া পৌরসভার বিনামারা এলাকার মৌলভী নেছার আহামদের ছেলে। শনিবার (২৫ মে) রাত সাড়ে ১০টার দিকে চকরিয়া পৌর সদরের ওয়েষ্টার্ণ প্লাজার সামনে এ ঘটনা ঘটে।

আনাস চকরিয়া কেন্দ্রিয় উচ্চ বিদ্যালয় হতে ২০১৯ সালে প্রকাশিত এসএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পাশ করে কলেজে ভর্তির প্রস্তুতি নিচ্ছিল।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, শনিবার সন্ধ্যায় চকরিয়া পৌর সদরে ঈদের কেনাকাটা করতে আসছিলেন আনাস ইব্রাহিম। কেনাকাটা করে রাত ১০টার দিকে বাড়ি ফিরতে সুপার মার্কেটের সামনে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিলেন তিনি। এ সময় হঠাৎ ৫-৬জন দূর্বৃত্ত এসে আনাসকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়।

ছুরিকাঘাতে আনাছের নাড়িভূড়ি বের হয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয় লোকজন আনাসকে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে রেফার করেন।

চট্টগ্রামে নেওয়ার পথে মারা যায় আনাস। বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন তার  সাথে থাকা বন্ধু ইয়াছির আরাফাত মুন্না।

এদিকে, ছুরিকাঘাতের ঘটনার পর চকরিয়া থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে এ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে চার যুবককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে। এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি ক্ষুর (ছুরি) উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে পুলিশ আটককৃতদের নাম পরিচয় জানাতে পারেনি।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান   বলেন, চকরিয়া পৌর সদরের ওয়েষ্টার্ণ প্লাজার সামনে এক কিশোরকে ছুরিকাঘাত করে হত্যার ঘটনায় সন্দেহভাজন চার যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি ক্ষুর (ছুরি ) উদ্ধার করা হয়েছে। প্রকৃত আসামীদের ধরতে পুলিশের সাঁড়াশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/জেডআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue