শুক্রবার, ২৪ মে, ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

একই পরিবারের ৩ নারীকে ধর্ষণ করল পীর

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৬ মে ২০১৯, সোমবার ০৩:২২ পিএম

একই পরিবারের ৩ নারীকে ধর্ষণ করল পীর

ঢাকা : প্রায় ১০ বছর আগে প্রবাসীর স্ত্রী মুরীদ হন একই এলাকার ভন্ড পীর মনির হোসেনের আস্তানায়।  ফলে ভন্ড পীরের দরবারে নিয়মিত যাতায়াত ছিলো। এভাবে ধর্মের নানা অপব্যাখ্যা নিয়ে প্রতিনিয়ত ধর্ষণ করে আসছিলো এই নারীকে। তারপর ভন্ড পীরের নজর পরে ওই নারীর ছোট বোনের উপর। রড় বোনকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে একই কায়দায় ছোট বোনকে মুরীদ করে নেয় ভন্ড পীর। এরপর তাকেও নিয়মিত ধর্ষন করে আসছিলো।

এখানেই শেষ নয় সর্বশেষ বড় বোনের ১৩ বছরের কিশোরী মেয়েও রেহাই পায়নি ভন্ড পীরের কবল থেকে। তার মাকে নানা কৌশল করে বুঝিয়ে মেয়েও একই কায়দায় ধর্ষণ করতে শুরু করে। ভন্ড পীরের আস্তানায় আশুলিয়ার কুরগাঁও এলাকার ৫ তলা বাড়ির ৫ তলাতেই। দীর্ঘদিন ধরে আস্তানা তৈরি করে নিজ বাড়িতেই এমন ভয়ংকর অপকর্ম চালিয়ে আসছিলো  ভন্ড পীর।

অবশেষে আশুলিয়া একই পরিবারের মা, মেয়ে ও বোনসহ ৩ নারী ধর্ষণের অভিযোগে এক ভন্ড পীরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ভুক্তভোগী নারীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী এক নারী বাদী হয়ে ভন্ড পীর ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।

সোমবার দুপুরে আশুলিয়া থানা পুলিশ এই তথ্য নিশ্চিত করেন। পরে তাকে রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়। এর আগে গতরাতে ভন্ড পীর মো. মনির হোসেনকে আশুলিয়ার কুরগাঁও এলাকার নিজ বাড়ি থেকে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় আস্তানা থেকে ওই তিন নারীকে উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত ভন্ড পীর মনির হোসেন আশুলিয়ার কুরগাঁওয়ের মৃত আ:রহিমের ছেলে। এ ঘটনায় ভন্ড পীরের মকবুল নামে এক সহযোগি পালাতক রয়েছে।

এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মাদ রিজাউল হক দিপু জানান, দীর্ঘদিন ধরে পরিবারের বড় বোনকে ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে নানা কৌশলে ভন্ড পীরের মুরীদ করে ধর্ষণ করে আসছিলো। পরে তার ছোট বোনকে একই কৌশলে ধর্ষণ করে। এরপর ভন্ড পীর একই কায়দায় বড় বোনের কিশোরী মেয়েও প্রতিনিয়িত ধর্ষণ করে আসছিলো। পরে ভন্ড পীরের আস্তানা থেকে কৌশলে বের হয়ে ছোট বোন আশুলিয়া থানায় অভিযোগ জানালে পরে অভিযান চালিয়ে ভন্ড পীরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

নানা কৌশলে ভন্ড পীর তার নিজ বাড়ীতে আস্তনা তৈরি করে আরও একাধিক নারীকে ধর্ষণের তথ্য রয়েছে বলেও জানায় পুলিশ।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue