বুধবার, ১৯ জুন, ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬

এবার রোগী সেজে হাসপাতালে মাশরাফি (ভিডিও)

ক্রীড়া প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৭ এপ্রিল ২০১৯, শনিবার ০৮:২৫ পিএম

এবার রোগী সেজে হাসপাতালে মাশরাফি (ভিডিও)

ছবি সংগৃহীত

ঢাকা: চলতি বছর ৩৭ বছরে পা রাখবেন মাশরাফি বিন মুর্ত্জা। এই বয়সেও বাইশ গজ দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের এই ওয়ানডে অধিনায়ক। পাশাপাশি রাজনীতিতে নাম লিখিয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের টিকিটে নড়াইল-২ আসন থেকে বিপুল ভোটে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এমপি হয়ে বসে নেই তিনি এলাকার উন্নয়নে এক মন্ত্রণালয় থেকে আরেক মন্ত্রণালয়ে ঘুরছেন। এবার সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছেন নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত এই ক্রিকেটার।

গেল বুধবার (২৪ এপ্রিল) দুপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা ও সুধিজনের সাথে মতবিনিময়কালে দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলতে গিয়ে মাশরাফি বলেছিলেন, ‘যারা দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেয় তারাও দোষে দোষী। আপনারা নিজ নিজ দায়িত্ব সততা ও নিষ্ঠার সাথে পালন করবেন। স্বচ্ছতার সাথে কাজ করতে গিয়ে যদি কেউ হুমকি দেয় তাহলে আমাকে জানাবেন। কারও বিরুদ্ধে কোনো অনিয়ম পেলে ছাড় দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। ইতিমধ্যে নড়াইলের একজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন দুর্নীতির তথ্য আমার হাতে এসেছে। আমি একজন সরকারি কর্মকর্তার ফাইল রেডি করে আনছি। আমি নিজেই দুদকে কেচ করবো তার নামে’।

তারই ধারাবাহিকতায় এবার নড়াইল সদরে আধুনিক হাসপাতালে হাজির হন মাশরাফি। সেখানে চিকিৎসা নিতে আসা মানুষের কাছ থেকে নানা সমস্যার কথা শুনে খোঁজখবর নিয়ে দেখতে পান, পুরো হাসপাতালে দায়িত্ব পালন করছেন মাত্র এক জন ডাক্তার। মাশরাফি জানতে পারেন, ছুটি ছাড়াই এক জন চিকিৎসক ৩ দিন অনুপস্থিত রয়েছেন!

এতে খানিকটা ক্ষিপ্ত হয়ে মাশরাফি নিজে অসুস্থ সেজে প্রথম হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা: মো: আব্দুস শাকুর এবং পরে সিনিয়র সার্জারী ডা: আকরাম হোসেনকে। এক চিকিৎসক ফোনে তাকে (মাশরাফি) রোববার হাসপাতালে এসে চিকিৎসা নিতে বলেন। এ সময় নিজের পরিচয় দিয়ে মাশরাফি ডাক্তারকে বলেন, ‘এখন যদি হাসপাতালের সার্জারি প্রয়োজন হয় তাহলে সেই রোগী কী করবে? চুপ করে আছেন কেন? আপনি কি ফাইজলামি করেন?

তিনি বলেন, ‘আমার নড়াইলে চাকরী করতে হলে সরকারি নিয়ম-নীতি মেনে চাকরি করবেন, তা না হলে চাকরী ছেড়ে চলে যান, আমি আপনাকে চলে যেতে হেল্প করবো। অযাথা আমার এলাকা বা দেশের মানুষকে সেবা প্রদানে হয়রানি করার কোন অধিকার আপনার নেই।’ এরপর মাশরাফি সেই ডাক্তারকে তার কর্তব্যর কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে দ্রুত কর্মস্থলে ফিরে আসার নির্দেশ দেন।

ভিডিও:

শুধু তাই নয়, হাসপাতালে নার্সের অপর্যাপ্ততা দেখেও ক্ষোভ প্রকাশ করেন তারকা ক্রিকেটার থেকে সংসদ সদস্য বনে যাওয়া মাশরাফি। জানতে পারেন হাসপাতালে পর্যাপ্ত নার্স থাকলেও ২-১ জন নার্স দিয়েই বিভিন্ন ওয়ার্ড পরিচালিত হচ্ছে। এ কথা শুনে তাৎক্ষণিক নিচে নেমে এসে নার্সিং সুপারভাইজারদের খোঁজ করেন মাশরাফি। নার্সদের কক্ষে তালা দেখতে পেয়ে টেলিফোনে দায়িত্বপ্রাপ্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেন। এসময় একজন সুপারভাইজারের ফোন বন্ধ পাওয়া যায় এবং অপরজনের ফোন খোলা থাকলেও রিসিভ করেননি।

ওই সময় রোগীরা অনুরোধ করেন হাসপাতালের বাথরুম ও তার পরিবেশ দেখার জন্য। কয়েকটি বাথরুমের দরজা ভাঙা এবং দুর্গন্ধ যা দেখে মাশরাফি নিজেই বিব্রত হয়ে যায়।

হাসপাতালে কোন দালাল ডুকতে পারবে না, হাসপাতাল ক্যাম্পাসে বহিরাগত কোন প্রাইভেট এ্যাম্বুলেন্স অবস্থান করতে পারবে না। এর কোনটা ব্যতয় ঘটলে কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। হাসপাতালে যতটুকু রিসোর্স রয়েছে তার সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করতে এবং প্রতিনিয়ত জেলা প্রশাসক ও এসপিকে অবহিত করতে নির্দেশ দেন তিনি। এদিন রাত ৯টায় নড়াইল হাসপাতালের স্টোর রুম পরিদর্শন করেন এবং হাসপাতালের কর্মকর্তাদের মতবিনিয় করেন।

এ সময় জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার), সিভিল সার্জন ডা: আসাদ-উজ-জামান মুন্সী, হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা: মো: আব্দুস শাকুর, আরএমও ডা: মশিরউর রহমান বাবু, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, চিকিসৎক, নার্স উপস্থিত ছিলেন।

জানা গিয়েছে আগামী ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত নড়াইলেই অবস্থান করবেন মাশরাফি। এরপর জাতীয় দলের ক্যাম্পে যোগ দিতে ঢাকায় আসবেন।

প্রসঙ্গত, ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ (ডিপিএল)শেষে বিশ্বকাপ স্কোয়ার্ডে থাকা খেলোয়াড়দের দুই দিনের ছুটি দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ছুটি পেয়ে যে যার মতো করে সময় কাটাচ্ছেন। কিন্তু ব্যাতিক্রম শুধু মাশরাফি বিন মুর্তাজা। ছুটির দিনে বিশ্রাম না নিয়ে নড়াইলের পথে প্রান্তরে ছুটে বেড়াচ্ছেন জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি। কারণ, তিনি নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য। এই্ এলাকার ভাল মন্দের দেখ ভালের দায়িত্ব তার উপর। এলাকার উন্নয়ন কাজের গতি দেখতে ছুটে বেড়াচ্ছেন তিনি।

সোনালীনউজ/ঢাকা/জেডআই