শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

এবার লবণ নিয়ে গুজব

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার ০৫:১২ পিএম

এবার লবণ নিয়ে গুজব

ঢাকা : পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি নিয়ে তোলপাড়ের পর এবার লবণ নিয়ে গুজব ছড়িয়ে পড়ার খবর পাওয়া গেছে।

সোমবার (১৭ নভেম্বর) সন্ধ্যা থেকে লবণের দাম বেড়ে যাচ্ছে এমন খবর ছড়িয়ে পড়ে পুরো সিলেট জুড়ে।

এতে সোমবার সন্ধ্যা থেকে ক্রেতারা হুমড়ি খেয়ে পড়েন সিলেট নগরীর ভোগ্যপণ্যের দোকানগুলোতে। বাড়তি চাপে নিমিষেই ফুরিয়ে যায় নগরীর বিভিন্ন দোকানের লবণের স্টক। আবার অনেক ব্যবসায়ী বেশি দামে বিক্রির জন্য লবণ মজুদ করে রাখেন বলেও অভিযোগ ওঠেছে। সিলেট নগরী ছাড়াও পুরো জেলাজুড়ে লবণ নিয়ে চলছে এই লঙ্কাকাণ্ড। খবর ইউএনবি।

প্রশাসন বলছে, লবণের দাম বৃদ্ধির খবর পুরোটাই গুজব। কেউ উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে এই গুজব ছড়াতে পারে। ব্যবসায়ীরাও জানিয়েছেন, লবণের চাহিদামাফিক সরবরাহ আছে। শিগগিরই দাম বাড়ার আশঙ্কা নেই। তবে ব্যবসায়ীরা এমনটি দাবি করলেও সোমবার রাতেই অনেক দোকানে বাড়তি দামে লবণ বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এদিকে গুজবকে কেন্দ্র করে জনগণকে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন নিজের ফেসবুকে লিখেন, ‌প্রিয় সিলেটবাসী, বাজারে নিত্য-প্রয়োজনীয় সামগ্রীর পর্যাপ্ত সরবরাহ রয়েছে। কোন নিত্য-প্রয়োজনীয় সামগ্রীর দাম বাড়তে পারে এমন গুজবে কান না দেয়ার জন্য সকলকে বিশেষভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।

সোমবার রাতে নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, লবণ কেনার জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন ক্রেতারা। বেশিরভাগ মুদি দোকানেরই মজুদ ফুরিয়ে গেছে। দোকানে লবণ না পেয়ে ক্রেতাদের আক্রমণাত্মক আচরণ করতেও দেখা গেছে।

তবে সব ক্রেতারই দাবি, লবণের দাম বাড়তে যাচ্ছে এমন খবর শুনেছেন। তাই লবণ কিনতে এসেছেন তারা। তবে কোথায় এমন সংবাদ শুনেছেন একথা কেউ বলতে পারেননি।

সুপারশপ স্বপ্ন'র হাউজিং এস্টেট শাখার ব্যবস্থাপক নাহিদ তারানা চৌধুরী বলেন, সন্ধ্যার পর থেকেই ক্রেতারা লবণ কিনতে ভিড় করেন। একেক জন ৪/৫ কেজি করে লবণ কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। আমাদের এখানে লবণের যথেষ্ট সরবরাহ রয়েছে। আমরা নির্ধারিত দামেই ক্রেতাদের লবণ বিক্রি করছি। লবণের দাম দ্রুত বাড়ার শঙ্কা নেই বলেও জানান তিনি।
তবে স্বপ্ন'র জিন্দাবাজার শাখার এক কর্মী বলেন, সন্ধ্যার পরই তাদের লবণের স্টক শেষ হয়ে গেছে।

দক্ষিণ সুরমার গোটাটিকরের মুদি দোকানি কয়েছ উদ্দিন কুটি বলেন, সন্ধ্যার পর আচমকা কেবল লবণ কেনার জন্য ক্রেতারা এসে দোকানে ভিড় করতে থাকেন। অল্প সময়ের মধ্যেই আমার দোকানের সব লবণ শেষ হয়ে যায়।

এ ব্যাপারে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) মো. জেদান আল মূসা লবণ নিয়ে গুজবে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, এ ব্যাপারে পুলিশ সর্তক অবস্থায় আছে। লবণ নিয়ে যারা গুজব রটাবে তাদের বিরুদ্ধে কঠিন আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে সিলেটে লবণ ভর্তি দুটি ভ্যান জব্দ করেছে এনএসআইর প্রতিনিধি দল। সোমবার সিলেট নগরীর কালীঘাট এলাকা থেকে বিভিন্ন কোম্পানির প্রায় ৫০ বস্তা লবণ জব্দ করা হয়। এসময় দুই ভ্যান চালককে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ২ ব্যবসায়ীকে ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ব্যবসায়ীরা প্রতি বস্তা ২১৬ টাকা বেশি দামে লবণ বিক্রি করেছেন বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে বলে জানান সদর উপজেলার এসিল্যান্ড সুমন্ত ব্যানার্জি।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue