বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট, ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

এ বিশ্বকাপেও ভারতকে অদ্ভুত কিছূ সুবিধা দিল আইসিসি!

স্পোর্টস ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৩ জুন ২০১৯, সোমবার ০৯:০৮ এএম

এ বিশ্বকাপেও ভারতকে অদ্ভুত কিছূ সুবিধা দিল আইসিসি!

ঢাকা: সব দলে আশা-প্রত্যাশা নিয়েই বিশ্বকাপ শুরু হয়েছে ৩০ মে। ইতিমধ্যে বিশ্বকাপ চতুর্থ দিনে পা দিয়েছে। অথচ সপ্তম দিনের আগে ভারতের কোনো ম্যাচ নেই! বিশ্বকাপে ভারত তাদের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামবে ৫ জুন।

তার আগে অধিকাংশ দলই দুটি করে ম্যাচ খেলে ফেলবে। সেই তালিকায় আছে ইংল্যান্ড, আফগানিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান। ৫ জুন বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডও তাদের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলে ফেলবে। আর সেদিন ভারতের বিপক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকা তাদের তৃতীয় ম্যাচ খেলতে নামবে। অথচ সেটা হবে ভারতের প্রথম ম্যাচ! ৬ জুন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও অস্ট্রেলিয়া তাদের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলবে।

সূচি অনুযায়ী ২ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ খেলার কথা ছিল ভারতের। কিন্তু তাদের খেলোয়াড়দের আটসাঁট সূচির আইপিএল খেলার ধকল কাটিয়ে উঠতে বিশ্বকাপের আগে কমপক্ষে ১৫ দিন বিশ্রাম (রিকভারি) চেয়েছিল ভারতের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ড (বিসিসিআই)। আর সেটা করতেই ২ জুনের ম্যাচটি ৫ জুন স্থানান্তর করা হয়েছে।

ভারতকে সুবিধা দিতে গিয়ে অন্য দলগুলোর প্রতি কঠোর হয়েছে আইসিসি। উদাহরণস্বরূপ ধরা যাক দক্ষিণ আফ্রিকা আজ রোববার বাংলাদেশের বিপক্ষে তাদের দ্বিতীয় ম্যাচটিও হেরে যায়, সেক্ষেত্রে ৫ জুন ভারতের বিপক্ষে তারা বেশ চাপে থেকে মাঠে নামবে। ব্যাকফুটে থেকে ভারতের মতো একটি দলের বিপক্ষে খেলা দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য কতোটা যুক্তিযুক্ত? অবশ্য এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই যে ভারত বিশ্বকাপের অন্যতম ফেবারিট দল। কিন্তু তাদের প্রথম ম্যাচের দিন অপর একটি দলের তৃতীয় ম্যাচ খেলাটা কতোটা ভারসাম্যপূর্ণ? এটা কী ফুটবল বিশ্বকাপ কিংবা অন্য কোনো মেগা ইভেন্টে সম্ভব হতো? হয়তো হতো না।

ভারত যখন মাঠে নামবে তখন বিশ্বকাপের আটটি ম্যাচ হয়ে যাবে। এর মধ্য দিয়ে ভারত ভালোভাবেই অন্য দলগুলো, পিচ ও কন্ডিশন সম্পর্কে ভালো ধারনা পেয়ে যাবে। বিশ্বকাপের সময় ভারতকে এমন সুবিধা দেওয়াটা অনেকটা দৃষ্টিকটু হয়ে দেখা দিয়েছে। বিশ্বকাপের ছয়দিন পর ভারত কেন প্রথম ম্যাচ খেলতে মাঠে নামবে সেই প্রশ্ন এখন অনেকের কাছেই এক ধাঁধার নাম।

সোনালীনিউজ/এইচএন

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue