শুক্রবার, ০২ অক্টোবর, ২০২০, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭

করোনায় প্রতি ১৫ সেকেন্ডে একজনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৫ আগস্ট ২০২০, বুধবার ১১:১১ পিএম

করোনায় প্রতি ১৫ সেকেন্ডে একজনের মৃত্যু

ঢাকা: বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ৭ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স গত দুই সপ্তাহের তথ্য বিশ্লেষণ করে জানিয়েছে, প্রতি ২৪ ঘণ্টায় গড়ে প্রায় ৫ হাজার ৬০০ মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। এই হিসেবে প্রতি ঘণ্টায় মৃত্যু হচ্ছে ২৪৭ জনের বা প্রতি ১৫ সেকেন্ডে মারা যাচ্ছেন একজন মানুষ।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করেছেন, করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। যদিও দেশটিতে ১ লাখ ৫৫ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু প্রমাণ করে দেশটির সংকটে পড়া স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নতুন আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণে আনতে পারছে না।

অ্যাক্সিওস নিউজ ওয়েবসাইটকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প বলেছেন, মানুষ মারা যাচ্ছে সত্যি। কিন্তু এর মানে এই নয় যে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি না। যতটুকু সম্ভব নিয়ন্ত্রণ করা যায় ঠিক তেমন নিয়ন্ত্রণে আছে। এটি ভয়াবহ প্লেগ।

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জইর বলসোনারো মহামারির ভয়াবহতাকে গুরুত্ব দেননি এবং লকডাউনের বিরোধিতা করেছিলেন। যদিও তিনি এবং তার মন্ত্রিসভার বেশ কয়েকজন সদস্য করোনা পজিটিভ বলে শনাক্ত হয়েছেন।

মহামারি ৬৪০ মিলিয়ন জনসংখ্যার লাতিন আমেরিকায় ধীরে ধীরে বিস্তৃত হচ্ছিল। কিন্তু মহামারি গতি পাওয়ার পর সরকারগুলো তা নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। লাতিন আমেরিকা ও ক্যারিবিয়ানের ১০ কোটির বেশি মানুষ বস্তিতে বাস করে। অনেকেই অনানুষ্ঠানিক খাতে কাজ করে কর্মসংস্থান নিশ্চিত করেন। ফলে তাদের সামাজিক সুরক্ষা আনা কঠিন ছিল। মহামারির মধ্যেই তারা বাইরে কাজ অব্যাহত রেখেছে।

এমনকি যেসব দেশ মহামারির প্রথম দফার সংক্রমণ কমিয়ে আনতে পেরেছিল সেগুলোতেও নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে। অস্ট্রেলিয়া, জাপান, হংকং, বলিভিয়া, সুদান, ইথিওপিয়া, বুলগেরিয়া, বেলজিয়াম, উজবেকিস্তান ও ইসরায়েলে নতুন করে রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। অস্ট্রেলিয়াতে বুধবার রেকর্ড সংখ্যক মৃত্যু হয়েছে। দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৪৭ জনে।

আন্তর্জাতিক জরিপ পর্যালোচনা সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুসারে, বাংলাদেশ সময় বুধবার রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৭ লাখ ৬ হাজার ২৮৯ জন। মোট আক্রান্ত ‌১ কোটি ৮৭ লাখ ৮৭ হাজার ৯৩৪ জনের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ১৯ লাখ ৭৬ হাজার ৬০৬ জন।

সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৬০ হাজার ৪৮৮ জন। এরপর তালিকায় থাকা ব্রাজিলে মৃত্যু হয়েছে ৯৬ হাজার ৯৬ জনের। এছাড়া মেক্সিকোতে ৪৮ হাজার ৮৬৯, যুক্তরাজ্যে ৪৬ হাজার ৩৬৪, ভারতে ৪০ হাজার ৫৭৫, ইতালিতে ৩৫ হাজার ১৮১, ফ্রান্সে ৩০ হাজার ২৯৬ এবং স্পেনে ২৮ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

সোনালীনিউজ/এইচএন

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue