সোমবার, ২৫ মে, ২০২০, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

করোনা টেস্ট করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৯ মার্চ ২০২০, রবিবার ০১:৩৪ পিএম

করোনা টেস্ট করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক

ফাইল ছবি

ঢাকা: নভেল-১৯ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হননি বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ড. জাহিদ মালেক। রোববার (২৮ মার্চ) আইইডিসিআরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে দুপুরে বাসা থেকে যুক্ত হয়ে এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, আমি করোনায় আক্রান্ত নই। টেস্ট করেছি; কোয়ারেন্টাইনে নই। এ মুহূর্তে সবাই যেভাবে রয়েছেন; আমিও সেভাবে আছি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, চিকিৎসকদের নিরাপত্তার জন্য ইতোমধ্যে ৩ লাখ পিস পিপিই (পারসোনাল প্রোটেকশন ইকুপমেন্ট) দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ব্যক্তি উদ্যোগেও অনেক পিপিই দেয়া হচ্ছে।

জাহিদ মালেক আরো বলেন, কারো সর্দি বা কাশি হলেই তিনি করোনা আক্রান্ত এ কথা ঠিক নয়। আপনারা চিন্তিত না হয়ে প্রয়োজনীয় পরামর্শ নেন।

এদিকে করোনার কারণে দেশ যে বাধ্যতামূলক ছুটি দেয়া হয়েছে তা শেষে পরিস্থিতি বুঝে প্রধানমন্ত্রী সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

এ সময় সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন সাহায্য আসার কথা জানিয়ে সবাইকে ধন্যবাদ জানান তিনি। এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ সফলভাবে সীমিত রাখা গেছে। ৪ এপ্রিল সাধারণ ছুটি শেষ হওয়ার পর যখন জনগণ গ্রাম থেকে ফিরবেন তখন যাতে আবারো করোনা সংক্রমণ না ঘটে, সে বিষয়ে পরিস্থিতি বুঝে সিদ্ধান্ত জানাবেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে, বাংলাদেশে নতুন করে কারো দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়নি এবং মারাও যাননি বলে জানান জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। ৱ

রোববার (২৯ মার্চ) দুপুর ১২টার কিছুক্ষণ পরে রাজধানীর মহাখালী থেকে অনলাইনে সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান তিনি।

তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১০৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের কারো দেহে করোনা শনাক্ত হয়নি। যারা চিকিৎসাধীন ছিলেন তাদের মধ্যে ১৫ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এখনও চিকিৎসাধীন ২৮ জন।

এদিকে, বিশ্বব্যাপী এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ৬৩ হাজার ৭৪০ জন। মারা গেছেন ৩০ হাজার ৮৭৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৪২ হাজার ১৮৩ জন। বর্তমানে ৪ লাখ ৯০ হাজার ৬৭৮ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

এদের মধ্যে ৪ লাখ ৬৫ হাজার ৪১৭ জনের অবস্থা স্থিতিশীল এবং ২৫ হাজার ২০৭ জনের অবস্থা শঙ্কটাপন্ন। বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত করোনায় ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ৪৮ জন।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ