বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ, ২০১৯, ৬ চৈত্র ১৪২৫

কিরণের বিরুদ্ধে অভিযোগ তদন্ত করছে বাফুফে

ক্রীড়া প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৪ মার্চ ২০১৯, বৃহস্পতিবার ০৯:২৪ পিএম

কিরণের বিরুদ্ধে অভিযোগ তদন্ত করছে বাফুফে

ফাইল ছবি

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে কটূক্তির অভিযোগ উঠেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) কার্যনির্বাহী সদস্য ও নারী ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরনের বিরুদ্ধে। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন। বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  

বাফুফে সভাপতির নির্দেশে এরইমধ্যে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তিন সদস্যের এই কমিটির প্রধান করা হয়েছে বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি সালাম মুর্শেদীকে। কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন বাফুফের সহ-সভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ ও সদস্য আব্দুর রহিম। মাহফুজা আক্তার কিরনের বিরুদ্ধে অভিযোগ পর্যালোচনা করে তদন্ত কমিটি বাফুফের কাছে রিপোর্ট জমা দেবে।

এ প্রসঙ্গে বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ বলেন, ‘বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের নির্দেশে তদন্ত কমিটি হয়েছে। আগামী সপ্তাহে এই কমিটি বৈঠকে বসবে, এরপর তদন্ত রিপোর্ট জমা দেবে।’

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করার অভিযোগে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) কার্যনির্বাহী সদস্য ও ফিফার কাউন্সিল সদস্য মাহফুজা আক্তার কিরণের বিরুদ্ধে ৫০ কোটি টাকার মানহানি মামলা করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) ঢাকা মহানগর হাকিম সরাফুজ্জামান আনছারীর আদালতে মামলাটি দায়ের করেছেন লে. শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের স্থায়ী কমিটির সদস্য আবু হাসান চৌধুরী প্রিন্স।  

বুধবার (১৩ মার্চ) মাহফুজা আক্তার কিরনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। গ্রেপ্তারি সংক্রান্ত তামিল প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ২ এপ্রিল দিন ধার্য করেছেন আদালত।

মামলায় বাদী উল্লেখ্য করেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন ক্রীড়ামোদি। ওনার সম্পর্কে গত ০৮ মার্চ তারিখে বেলা ৪.৩৫ মিনিটের সময় রাজধানীর মতিঝিলস্থ বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের প্রধান কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে মানহানিকর বক্তব্য প্রদান করেন মাহফুজা আক্তার কিরণ। তিনি বলেন, পিএম হিসেবে সব খেলাই তার কাছে সমান। সেখানে কেন দু’চোখে দেখবে? মেয়েরা ব্যাক টু ব্যাক চ্যাম্পিয়ন। গিফট তো পরের কথা, অভিনন্দন তো দিতে পারে, মিডিয়ায় কি কোনো অভিনন্দন জানাইছে? বিএফএফের টাকা কেন প্রধানমন্ত্রীর হাত দিয়ে দেওয়া হবে? প্রধানমন্ত্রীর সাথে বিসিবির  অনেক স্বার্থ আছে। বিসিবি সরকারের অনেক ফ্যাসিলিটিজ নেয়। চুন থেকে পান খসলেই প্লট পেয়ে যায়, গাড়ি পেয়ে যায়। বিএফএফ সরকারের কাছে থেকে কোন ফ্যাসিলিটিজ নেয় না।’

কিরণের এমন বক্তব্য বেসরকারি টেলিভিশন, পত্রিকা ও অনলাইনে প্রকাশিত হয়। তার এমন বক্তব্যে বাদীর ৫০ কোটি টাকার মানহানি হয়েছে মর্মে আদালতে মামলাটি করা হয়।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/জেডআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue