বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০২০, ১০ মাঘ ১৪২৬

কেরানীগঞ্জে আগুনে দগ্ধ আরো একজনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, শনিবার ০৪:৩২ পিএম

কেরানীগঞ্জে আগুনে দগ্ধ আরো একজনের মৃত্যু

ঢাকা : রাজধানীর কেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ঢাকা মেডিকেল বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আসাদ (১৪) নামে আরও এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে কেরানীগঞ্জের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৪ জনে।

শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) ভোর সাড়ে ৪টার দিকে তার মৃত্যু হয়। নিহত আসাদের বাড়ি বরগুনা জেলার খাগগুনিয়া গ্রামে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়কারী সামন্ত লাল সেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি বলেন, অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ ১৭ জন এখনো হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এদের মধ্যে ১০জনের অবস্থা খুবই গুরুতর। তাদের আইসিইউতে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তাদের ভবিষ্যত একমাত্র আল্লাহ ছাড়া কেউ বলতে পারে না। আমরা সমন্বয় করে চিকিৎসার মাধ্যমে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

এদিকে কেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে নিহত বাকি ১৩ জন হলেন- জাহাঙ্গীর, ইমরান, বাবুল, রায়হান, খালেক, সালাউদ্দিন, সুজন, জিনারুল ইসলাম, আলম, জাকির হোসেন, ফয়সাল, মেহেদী ও ওমর ফারুক।

গত ১১ ডিসেম্বর বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে কেরানীগঞ্জের চুনকুটিয়ায় প্রাইম পেট অ্যান্ড প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড কারখানায় ভয়াবহ আগুনে প্রায় ৪০ জন শ্রমিক দগ্ধ হয়। এরমধ্যে ৩২জন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেরবার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছিল। 

অপরদিকে কেরানীগঞ্জে অনুমোদনহীন ও নিষিদ্ধ পলিথিন ও প্লাস্টিক কারখানায় অভিযান চালিয়ে ৫টি করাখানা সিল করে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। ওইসব কারখানার কোনো অনুমোদন নেই। এছাড়া পরিবেশ সম্মত নয়। ঝুঁকির মধ্যে গড়ে কারখানায় শ্রমিকরা কাজ করছিল বলে জানান ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

পাশাপাশি আগুনে হতাহতের ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটি চুনকুটিয়ায় প্রাইম পেট অ্যান্ড প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড কারখানা পরিদর্শনের পর সেটি বন্ধ করে দিয়েছে কমিটি। এছাড়া এ ঘটনায় নিহতের জন্য ১ লাখ টাকা এবং দগ্ধ ও আহতদের জন্য পঞ্চাশ হাজার টাকা অনুদান দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। 

সোনালীনিউজ/এএস