শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

ক্লাবপাড়া থেকে ক্যাসিনো জগতের গুরু আরমান

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৬ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার ০৮:৫০ পিএম

ক্লাবপাড়া থেকে ক্যাসিনো জগতের গুরু আরমান

ঢাকা : ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল হোসেন সম্রাট ও তার সবচেয়ে কাছের মানুষ এনামুল হক আরমানকে আটক করে র‍্যাব। বলা হচ্ছে, মূলত আরমানের হাত ধরেই দেশে ক্যাসিনো সম্রাট বনেছেন সম্রাট।

পাকিস্তান ও সিঙ্গাপুর থেকে লাগেজসহ বিভিন্ন পণ্য এনে সেখানে বিক্রি করতেন। সেই সুবাদেই সিঙ্গাপুরের ক্যাসিনোতে আসা যাওয়া ছিল তার। আরমানের উত্থান রাজধানীর বায়তুল মোকাররম এলাকা থেকে। আরমান একসময় বিএনপির রাজনীতি করতেন। হাওয়া ভবনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হওয়ার সুবাদে মতিঝিলের ক্লাবপাড়ায় প্রভাবশালী হয়ে ওঠেন। 

তখনই ফকিরাপুলের কয়েকটি ক্লাবের জুয়ার আসর নিয়ন্ত্রণ করা শুরু করেন। বিএনপি ক্ষমতাচ্যুত হলে যুবলীগ নেতা সম্রাটের ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠেন তিনি।  সম্রাট ঢাকা দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি হলে সহ-সভাপতি করা হয় আরমানকে। 

এসময় ক্যাসিনোর লাভজনক ব্যবসা সম্পর্কে সম্রাটকে ধারণা দেন তিনি। সে থেকেই রাজধানীর ক্যাসিনো জগতের অবিসংবাদিত নিয়ন্ত্রক হয়ে উঠেন ইসমাইল হোসেন সম্রাট আর তার ডান হাত এনামুল হক আরমান। কোরবানির ঈদের আগে মুক্তি পাওয়া মনের মতো মানুষ পাইলাম না সিনেমার প্রযোজক এনামুল হক আরমান। 

প্রধান কর্ণধার দেশবাংলা মাল্টিমিডিয়া নামে চলচ্চিত্র প্রযোজনা সংস্থার। তবে আরমানের বড় পরিচয় যুবলীগ নেতা সম্রাটের হয়ে ক্যাসিনোর টাকা সংগ্রহ করতেন তিনি। যদিও জনশ্রুতি আছে আরমানের মাধ্যমেই ক্যাসিনোর সঙ্গে জড়িত হন সম্রাট। 

উল্লেখ্য, ঢাকা দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটকে ও তার সহযোগী আরমানকে আটক করেছে র‌্যাব। রোববার কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে তাকে আটক করা হয়। আজ রবিবার ভোর ৫টার দিকে তাকে থেকে আটক করা হয়। এসময় তার অন্যতম সহযোগী আরমানকেও আটক করা হয়। আজ রবিবার তাকে আদালতে তোলা হবে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue