সোমবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৮, ৫ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫

‘গণস্বাস্থ্যে হামলা মানে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ওপর হামলা’

জাবি প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৫ নভেম্বর ২০১৮, সোমবার ০৭:৫৯ পিএম

‘গণস্বাস্থ্যে হামলা মানে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ওপর হামলা’

জাবি : মুক্তিযোদ্ধা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মানবসেবা প্রতিষ্ঠান গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে শুধুমাত্র রাজনৈতিক কারণে সরকারি মদদকৃত সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা হামলা করেছে। গণস্বাস্থ্য এই দেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্ভাসিত একটি প্রতিষ্ঠান। গণস্বাস্থ্যে হামলা মানে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ওপর হামলা বলে মন্তব্য করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক-শিক্ষার্থী ঐক্যমঞ্চের আহবায়ক অধ্যাপক নাসিম আখতার হোসাইন।

সোমবার (৫ নভেম্বর) বিকাল ৪টায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগে ‘গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট ও গণবিশ্ববিদ্যালয়ে হামলার প্রতিবাদে’ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ও গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই মন্তব্য করেন।

সংবাদ সম্মেলনে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে হামলার কিছু ভিডিও ফুটেজ দেখানো হয়। হামলায় আহত শিক্ষার্থী ওয়াসিম ফারিহা মাহি তাদের ওপর হামলার কথা বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। এ সময় এক হৃদয় বিদারক পরিবেশ সৃষ্টি হয়। তিনি বলেন, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর, ছাত্রীদের হামলা হয়েছে। আমরা কোনো অন্যায় করিনি। এখনো আমি ঠিক মতো চলাফেরা করতে পারি না। আমাদের বাঁচাতে এলে র‌্যাবের হাতে পা হারানো লিমনের ওপরও হামলা করা হয়। আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে এই সন্ত্রাসী হামলার ন্যায় বিচার চাই।

বিশিষ্ট রাষ্ট্রবিজ্ঞানী অধ্যাপক আবদুল লতিফ মাসুম বলেন, ‘ডা.জাফরুল্লাহ মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠন। তিনি সারাজীবন গরিব-দুঃখী মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। কিন্তু মতের অমিল হওয়ায় তাঁর প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানে হামলা করা হয়েছে। ছাত্রীদের ওপর হামলা নারীর অধিকারের চরম লঙ্ঘন। হামলা-পরবর্তী সরকারের নীরবতাই প্রমাণ করে তাদের মদদেই এ বর্বরতা।। এটা সরকারি অসহিঞ্চ ও স্বৈরচারী মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ।’ দেশে রাজনৈতিক পরবির্তন ছাড়া সমাজে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে জাহাঙ্গীরনগর শিক্ষক-শিক্ষার্থী ঐক্যমঞ্চের মুখপাত্র সহযোগী অধ্যাপক রাইহান রাইন অবিলম্বে গণ বিশ্ববিদ্যালয় ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার, হামলাকারীদের শাস্তির আওতায় আনা ও লুটপাটের ক্ষতিপূরণসহ ৬ দফা দাবি পেশ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক আমজাদ হোসেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক কামরুল আহসান, অধ্যাপক শরীফ উদ্দীন। অধ্যাপক শামীমা সুলতানা, সহযোগী অধ্যাপক মাসুদা পারভিন, ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদের সভাপতি নজির আমিন চৌধুরী জয়সহ শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/এইচএআর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue