শনিবার, ০৪ এপ্রিল, ২০২০, ২০ চৈত্র ১৪২৬

গতি বাড়াতেই মন্ত্রীদের দপ্তর পুনর্বণ্টন

বিশেষ প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার ০১:২৭ পিএম

গতি বাড়াতেই মন্ত্রীদের দপ্তর পুনর্বণ্টন

ঢাকা : সম্প্রতি মন্ত্রিসভায় স্বল্পপরিসরে রদবদল করেছে সরকার। মূলত মন্ত্রীদের পারফরম্যান্স ও কর্মকাণ্ডে আরো বেশি স্বচ্ছতা ও গতিশীলতা বাড়ানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অল্প কয়েকজন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পুনর্বণ্টন করেছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীকে সামনে রেখে মন্ত্রিসভায় ছোট্ট পরিসরে দপ্তর পুনর্বণ্টনের পর রোববার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে গৃহায়নমন্ত্রী থেকে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাওয়া শ ম রেজাউল করিম তার নতুন দপ্তরে বসেননি।

তবে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিমন্ত্রীর নতুন দায়িত্ব নিয়েছেন শরীফ আহমেদ।

রোববার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১টার দিকে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে আসেন শরীফ আহমেদ। এ সময় তাকে স্বাগত জানান মন্ত্রণালয়ের সচিব শহীদউল্লা খন্দকার। পরে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে প্রতিমন্ত্রীকে মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম সম্পর্কে ব্রিফ করেন মন্ত্রণালয়ের সচিব।

এ সময় রাজউক, গণপূর্ত অধিদপ্তরসহ মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরিচিত হন নতুন প্রতিমন্ত্রী। এ সময় সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় মন্ত্রণালয়ের কাজের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। মন্ত্রণালয়ের কাজের অনিয়ম ও দুর্নীতি হলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না হবে না বলে উল্লেখ করে মুজিববর্ষ উদযাপনের মূল ইভেন্ট এ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বের মধ্যে হওয়ায় তা যথাযথভাবে সম্পন্ন করার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন তিনি।

পরে মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন দপ্তরের পক্ষ থেকে নতুন প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়। এ সময় গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মো. আশরাফুল আলমসহ বিভিন্ন দপ্তর-অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এ মন্ত্রণালয়ের সদ্যসাবেক এবং  দায়িত্ব পুনর্বণ্টনের পর মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম শারীরিক অসুস্থতার কারণে নতুন মন্ত্রণালয়ে নিজ দপ্তরে যাননি। দিনভর তিনি হেয়ার রোডের বাসায় অবস্থান করেছেন বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকারের টানা তৃতীয় মেয়াদে সরকার গঠনের পর দ্বিতীয়বারের মতো মন্ত্রিসভা পুনর্বণ্টন করা হয়েছে গত বৃহস্পতিবার। পুনর্বণ্টনে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে থাকা মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমকে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ে আর গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয় সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা শরীফ আহমেদকে।

এছাড়া প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরুকে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী করা হয়েছে। জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রুলস অব বিজনেস অনুযায়ী মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীদের এই দায়িত্ব পুনর্বণ্টন করেছেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কার্যক্রমের গতিশীলতা বাড়ানোর জন্য মন্ত্রিসভায় একটা রদবদল করা হয়েছে। রদবদলটা এই মুহূর্তে হয়েছে পারফরম্যান্স বা গতিশীলতা বাড়ানোর জন্য। এজন্য নতুন করে মেজর (বড় ধরনের) কোনো পরিবর্তন বা সম্প্রসারণ এই মুহূর্তে হবে না। তবে এটা হয়তো আরো পরে হতে পারে।

তিনি বলেন, কাজের গতি বাড়ানোর জন্য এটা করা হচ্ছে, হয়তো আমি যে স্থানে আছি প্রধানমন্ত্রী মনে করছেন আমাকে অন্য আরেকটা স্থানে দিলে পারফরম্যান্সটা আরো ভালো হবে। এটা প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ার।

সাম্প্রতিক দায়িত্ব পুনর্বণ্টনে সাবেক গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজোউল করিমের ডিমোশন হলো কিনা- এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এটা ডিমোশন প্রমোশনের কোনো বিষয় নয়,  মন্ত্রী মন্ত্রীই আর মন্ত্রণালয় মন্ত্রণালয়ই।

গৃহায়নমন্ত্রী বর্তমানে যে মন্ত্রণালয়টা (মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ) পেয়েছেন সেটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী আরো বলেন,  মাছের আয়ের ক্ষেত্রে বিশ্বে আমাদের দেশের অবস্থান অনেক ওপরে।

সেদিক থেকে বিচার করলে এই মন্ত্রণালয়কে খাটো করে দেখা যায় না বলে উল্লেখ করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। গতকাল সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

সোনালীনিউজ/এমটিআই