বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯, ৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

‘ছেলে ধরা’ সন্দেহে পিটিয়ে গৃহবধূ হত্যার ঘটনায় আটক ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২২ জুলাই ২০১৯, সোমবার ১০:২০ এএম

‘ছেলে ধরা’ সন্দেহে পিটিয়ে গৃহবধূ হত্যার ঘটনায় আটক ৩

ঢাকা : রাজধানীর বাড্ডায় ‘ছেলে ধরা’ সন্দেহে পিটিয়ে গৃহবধূ তাসলিমা বেগম রুনু হত্যার ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। ভিডিও ফুটেজ দেখে রবিবার রাতে তাদের আটক করা হয়।

সোমবার (২২ জুলাই) বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম তিনজনকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আটকরা হলেন- জাফর, বাপ্পী এবং শাহিন। তাদের বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি ভাইরাল হওয়া হৃদয় নামে অভিযুক্ত একজনকে এখনও আটক করতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

গত শনিবার সকালে উত্তর বাড্ডায় ছেলে ধরা সন্দেহে গৃহবধূ তাসলিমাকে বেধড়ক পেটায় বিক্ষুব্ধ জনতা। গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হিহেতের ভাগ্নে ও বোন রেহানা জানায়, নিহতের নাম তসলিমা বেগম রেনু। তার ১১ বছরের এক ছেলে ও চার বছর বয়সী এক মেয়ে রয়েছে। আড়াই বছর আগে তসলিম উদ্দিনের সঙ্গে তার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। এরপর থেকে ছেলেমেয়েকে নিয়ে মহাখালী ওয়্যারলেস এলাকায় একটি বাড়িতে থাকতেন। এবং একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার অপারেটরের কাজ করতেন। দুই বছর ধরে স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হওয়া এই নারী গত শনিবার স্কুলে গিয়েছিলেন তার চার বছরের মেয়েকে ভর্তির বিষয়ে কথা বলতে। এরপর ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে নিহত হন।

ওই ঘটনায় শনিবার বাড্ডা থানায় অজ্ঞাত ৪০০ থেকে ৫০০ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন নাসির উদ্দিন।

সোনালীনিউজ/এএস

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue