মঙ্গলবার, ২১ মে, ২০১৯, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

‘জায়ানের বাবা এখনো জানে না, তার সন্তান নেই’

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৪ এপ্রিল ২০১৯, বুধবার ১০:৪৯ পিএম

‘জায়ানের বাবা এখনো জানে না, তার সন্তান নেই’

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জায়ান চৌধুরীর বাবা মশিউল হক চৌধুরী এখনো জানেন না, তার সন্তান আর নেই।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) বিকেলে একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বের শুরুতে শ্রীলংকার ঘটনার বৈশ্বিক সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ নিয়ে কথা বলতে গিয়ে জায়ানের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

ইতোমধ্যে শ্রীলংকায় ইস্টার সানডের সকালে সিরিজ বোমা হামলায় প্রাণ হারানো শিশু জায়ান চৌধুরীকে শেষ নিদ্রায় শায়িত করা হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে বনানী কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন হয়েছে তার। জায়ান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফুফাত ভাই ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের মেয়ের পক্ষের নাতি।

এর আগে বাদ আছর হাজারও মানুষের উপস্থিতিতে বনানী ক্লাব মাঠে জায়ানের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। তার আগে দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায় আট বছর বয়সী জায়ানের মরদেহ বহনকারী শ্রীলংকান এয়ারলাইন্সের ইউএল ১৮৯ নম্বর ফ্লাইট। সেখান থেকে বনানীর বাসভবনে নিয়ে যাওয়া হয় জায়ানকে। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে বাসার পাশেই চেয়ারম্যান বাড়ি মাঠে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। বাদ আছর বিকেল ৫টা ১০ মিনিটে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে জায়ানকে শেষবারের মতো দেখতে বুধবার দুপুর ২টা ৪০ মিনিটে শেখ সেলিমের বনানীর বাসায় পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে জায়ানের শোকসন্তপ্ত পরিবারকে সান্ত্বনা জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী সংসদে বলেন, জায়ান চৌধুরী একটা ছোট্ট বাচ্চা। মাত্র আট বছর বয়স। আজকে সে আমাদের মাঝে নেই। তার বাবাও মৃত্যু শয্যায়। বাবাকে এখনো জানতে দেওয়া হয়নি যে, জায়ান নেই। সে বারবার খুঁজছে। আর তার মা বা পরিবারের অবস্থা বুঝতেই পারেন বলেন শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, আমরা চাই না, এই ধরনের ঘটনা পৃথিবীর কোথাও ঘটুক। এই ধরনের ঘৃণ্য হামলা ঘটকু। আর যারা সন্ত্রাসী জঙ্গিবাদ, তাদের কোনো ধর্ম নেই। তাদের কোনো দেশ-কাল-পাত্র নেই। জঙ্গি জঙ্গিই, সন্ত্রাসী সন্ত্রাসী। আর ইসলাম ধর্মের নামে যারা করে তাদের উদ্দেশে শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের এই পবিত্র সেই ধর্মটাকেই সকল মানব জাতির কাছে হেয় প্রতিপন্ন করে দিচ্ছে। ইসলাম শান্তির ধর্ম এবং সব ধর্মেই শান্তির কথা বলা আছে। হিন্দু-মুসলমান খ্রিস্টান, বৌদ্ধ সব ধর্মেই শান্তির কথা বলা আছে। কিন্তু তারপরও কিছু লোক ধর্মীয় উন্মাদনায় তারা যে মানুষের প্রতি আঘাত হানে মানুষের জীবন কেড়ে নেয়, এটা মানবজাতির জন্য অত্যন্ত বেদনাদায়ক এবং কষ্টকর।

শেখ সেলিমের মেয়ে আমেনা সুলতানা সোনিয়া তার স্বামী মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স ও দুই ছেলেকে নিয়ে শ্রীলংকায় বেড়াতে গিয়েছিলেন। তারা কলম্বোর পাঁচ তারকা হোটেল সাংগ্রিলায় উঠেছিলেন। সকালে বড় ছেলে জায়ান চৌধুরীকে নিয়ে হোটেলে নাস্তা করতে গিয়েছিলেন প্রিন্স। একই সময়ে ছোট ছেলে জোহানকে নিয়ে হোটেল কক্ষে অবস্থান করছিলেন আমেনা সুলতানা সোনিয়া।

সোনালীনিউজ/এমএইচএম

 

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue