রবিবার, ০৯ আগস্ট, ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭

জিম্বাবুয়ের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জামিনে মুক্ত হয়েছেন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২১ জুন ২০২০, রবিবার ১২:৩৮ পিএম

জিম্বাবুয়ের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জামিনে মুক্ত হয়েছেন

ঢাকা: দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত জিম্বাবুয়ের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ওবাদিয়া মোয়োর জামিনে মুক্ত হয়েছেন। প্রায় ২০ মিলিয়ন ডলারের একটি চুক্তি হাঙ্গেরির একটি কোম্পানিকে কোনো যথাযথ প্রক্রিয়া ছাড়া দিয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে।

বিবিসি জানায়, শুক্রবার (১৯ জুন) করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) মোকাবিলায় জরুরি চিকিৎসা সামগ্রী ক্রয়ে দুর্নীতির অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়। দেশটির দুর্নীতি দমন কমিশনের (জেডিএসিসি) মুখপাত্র জন মাকামুরে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

শনিবার (২০ জুন) তাকে দেশটির আদালতে হাজির করা হয়। গ্রেফতারের পর মোয়োকে হারারের রোডেসভাইল পুলিশ স্টেশনে রাখা হয়েছিল।

সিজিটিএন আফ্রিকা জানায়, ড্রাক্স ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি প্রতিষ্ঠানকে অনিয়মের মাধ্যমে করোনা মোকাবিলায় জরুরি প্রয়োজনীয় ওষুধ ও ব্যক্তিগত সুরক্ষা উপকরণ সরবরাহে ৪২ মিলিয়ন ডলারের কাজ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ওবাদিয়াহ মোয়োরের বিরুদ্ধে। এদিকে এই অর্থের পরিমাণ ৬০ মিলিয়ন ডলার বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

সিজিটিএন জানায়, ওই প্রতিষ্ঠানটি কোনো ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি নয়, এটি সাধারণ পরামর্শক প্রতিষ্ঠান জানার পরও চিকিৎসাসামগ্রী সরবরাহের টেন্ডার পাইয়ে দেন মোয়ো।

জিম্বাবুয়ের ক্রয় নিবন্ধন কর্তৃপক্ষকে অবহিত না করেই তিনি এই চুক্তিতে সই করেছেন বলে জানিয়েছে আল জাজিরা।

রয়টার্সের তথ্য মতে, এ দুর্নীতির খবর প্রকাশের পরই গত সপ্তাহে ওই চুক্তি স্থগিত করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট এমারসন মানগাওয়া। একইসঙ্গে গ্রেফতার করা হয়েছে ড্রাক্স ইন্টারন্যাশনালের স্থানীয় প্রতিনিধিকেও।

এর আগে দুর্নীতির অভিযোগে দেশটির সাবেক পর্যটনমন্ত্রীকেও গ্রেফতার করা হয়েছিল। সূত্র : বিবিসি বাংলা

সোনালীনিউজ/টিআই