রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬

আজ বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস

ঝুঁকিপূর্ণ পেশায় নিয়োজিত দেশের ৭৫ শতাংশ শিশু

নিউজ ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১২ জুন ২০১৯, বুধবার ১১:০৩ এএম

ঝুঁকিপূর্ণ পেশায় নিয়োজিত দেশের ৭৫ শতাংশ শিশু

ঢাকা : শিশুশ্রম নিয়ে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) সর্বশেষ জরিপ ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বর্তমানে দেশে প্রায় ১৬ লাখ ৯৮ হাজার ৮৯৪টি শিশু নানা পেশায় নিয়োজিত। আর এদের মাঝে প্রায় ৭৫ দশমিক ৩৫ শতাংশ (১২ লাখ ৮০ হাজার ১৯৫টি শিশু) নিয়োজিত ঝুঁকিপূর্ণ শ্রমে।

বিবিএসের হিসাবে বর্তমানে দেশের মোট জনসংখ্যারপ্রায় ৪০ শতাংশ শিশু। পাঁচ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশু রয়েছে ৩ কোটি ৯৬ লাখ ৫২ হাজার। জনসংখ্যার অনুপাতে শিশুর হার সবচেয়ে বেশি ঢাকা বিভাগে, প্রায় ৩৩ দশমিক ৭ শতাংশ। এরপরই রয়েছে যথাক্রমে চট্টগ্রাম (২০ দশমিক ৬), রাজশাহী (১২ দশমিক ৫), রংপুর (১১ দশমিক ৩), খুলনা (১০ দশমিক ৫), সিলেট (৬) ও বরিশাল (৫ দশমিক ৩)।

নানা পেশায় নিয়োজিত এই শিশুশ্রম নিরসনের জন্য পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। সে অনুযায়ী ২০২১ সালের মধ্যে সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা ও টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য (এসডিজি) অর্জনে এবং ২০২৫ সালের মধ্যে সব ধরনের শিশুশ্রম নিরসনের লক্ষ্যে কাজ অব্যাহত রয়েছে।

শিশুশ্রম রোধে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মত আজ বাংলাদেশেও অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘চিলড্রেন শুড নট ওয়ার্ক ইন ফিল্ডস বাট অন ড্রিমস’ অর্থাৎ শিশুশ্রম নয়, শিশুর জীবন হোক স্বপ্নময়।

দিবসটি উপলক্ষে বাণী দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, আইএলও ঢাকা অফিস, বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থা, প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক গণমাধ্যমে আলোচনা অনুষ্ঠান, বিশেষ প্রকাশনা, পোস্টার, লিফলেট বিতরণসহ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

২০১০ সালে প্রণয়ন করা সরকারের জাতীয় শিশুশ্রম নিরসন নীতি বাস্তবায়নে জাতীয় কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন এবং শিশুশ্রম নিরসন কার্যক্রম মনিটরিংয়ের জন্য গঠিত জাতীয়, বিভাগীয়, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের কমিটিগুলো কাজ করছে।

এখন পর্যন্ত এ সকল কমিটি মালিক, শ্রমিক ও সুশীল সমাজের সঙ্গে আলোচনা করে মোট ৩৮টি কাজকে শিশুর জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে। ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োজিত শিশুদের জন্য ১৮ মাসব্যাপী উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ও ছয় মাস মেয়াদি দক্ষতা উন্নয়নমূলক প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে এর মাধ্যমে ৯০ হাজার শিশু স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছে।

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সরকার শিশুশ্রম নিরসনে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসনে ২৮৪ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এ প্রকল্পের চতুর্থ পর্যায়ে ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিযুক্ত এক লাখ শিশুকে প্রত্যাহার করে বৃত্তিমূলক ও কারিগরি শিক্ষা প্রদান করা হবে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই