সোমবার, ২৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১৪ মাঘ ১৪২৬

ডাঃ জাফরুল্লাহকে তালাবদ্ধ করে আটকে রেখেছে শিক্ষার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৪ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার ০৬:৩৫ পিএম

ডাঃ জাফরুল্লাহকে তালাবদ্ধ করে আটকে রেখেছে শিক্ষার্থীরা

ঢাকা: গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা এবং গণবিশ্ববিদ্যালয় ট্রাস্টি বোর্ডের অন্যতম ট্রাস্টি ডাঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে তালাবদ্ধ করে রেখেছে শিক্ষার্থীরা। বৈধ ভিসির নিয়োগের দাবিতে তাকে আটকে রাখে শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুর ১টার দিকে গণবিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের চার তলার গণবিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের বাৎসরিক বাজেট পাশ ও মেয়াদ বৃদ্ধি সংক্রান্ত সাধারণ সভায় যোগদান করতে এসে শিক্ষার্থীদের সাথে আলোচনায় অংশ নিয়ে তোপের মুখে পরেন তিনি। 

এসময় গণবিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের ভিপি জুয়েল রানা অন্য শিক্ষার্থীসহ ছাত্রনেতারা তাকে বাইরে থেকে তালাবদ্ধ করে রাখেন। এ সময় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সহ-সভাপতি (ভিপি) মো. জুয়েল রানা তালাবদ্ধ জাফরুল্লাহকে উদ্দেশ্যে করে বলেন, আপনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্যা নিয়ে নাটক শুরু করছেন। শুধুমাত্র আপনার জন্য বৈধ উপাচার্য, ব্যবসায় প্রশাসন ও ফিজিওথেরাপি বিভাগের সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। আপনি আজ শিক্ষার্থীদের সাথে বসে কোনো সমাধান না দেয়া পর্যন্ত আটক থাকবেন।

এ সময় উপস্থিত শিক্ষার্থীরা জানান, দুপুরের দিকে কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সঙ্গে বৈঠক করতে এসেছিলেন গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। এসময় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সহ-সভাপতি (ভিপি) তার কাছে উপাচার্যের বৈধতা, বিবিএ ও ফিজিওথেরাপি বিভাগের সমস্যা, কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের বাজেট, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রসপেক্টাস না মানাসহ বিভিন্ন প্রশ্ন করেন। তবে এসব প্রশ্নের জবাব না দিয়ে তিনি প্রশাসনিক ভবনে কর্মকর্তা ও শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠক করতে যান। পরে ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা সেই রুমটি তালা বন্ধ করে দেন।

এ দিকে, গণ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের ভিপি জুয়েল রানা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে বৈধ উপাচার্য নিয়োগের ব্যাপারে আশ্বাস দিয়েও তার কোনো প্রতিফলন শিক্ষার্থীদের সামনে উপস্থাপন করতে না পারায় এবং বিভিন্ন বিভাগের অনুমোদন সংক্রান্ত জটিলতা নিরসনের বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ফলপ্রসূ ভূমিকা না থাকায় সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে ডাঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়।

তিনি  বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো লিখিতভাবে জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে দেয়া হয়েছে। দাবি না মানা হলে তালা খোলা হবে না।

এসময় ওই কক্ষে ডাঃ জাফরুল্লাহর সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. দেলোয়ার হোসেন, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মীর মর্ত্তুজা আলী বাবু, সিনিয়র সহকারী রেজিস্ট্রার আবু মুহাম্মদ মোকাম্মেল, জনসংযোগ কর্মকর্তা শিরিন সুলতানা সহ বিভিন্ন বিভাগের প্রধানগণ অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন। গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা শিরিন সুলতানা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দুপুর দুইটার দিকে শিক্ষার্থীদের সাথে আলোচনার শর্তে তালা খুলে দেয়া হয়েছে। বর্তমানে তাদের দাবির বিষয়ে আলোচনা চলছে। 

সোনালীনিউজ/এমএএইচ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue