বুধবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৯, ১১ বৈশাখ ১৪২৬

ড. কামাল হোসেনের গোপন তওবা!

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, বুধবার ০৭:১০ পিএম

ড. কামাল হোসেনের গোপন তওবা!

ফাইল ছবি

ঢাকা : ড. কামাল হোসেনের গোপন তওবার কথা জানালেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ১৯৮৫ সালে প্রলয়ঙ্কারী জলোচ্ছ্বাসের পর ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনার স্মৃতি রোমন্থন করে ড. কামাল হোসেন সম্পর্কে শেখ হাসিনা বলেন, আমরা ভোরবেলা পান্তা ভাত, নারকেল কোরা আর শুকনা মরিচ দিয়ে খেয়ে সারাদিন রিলিফের ওয়ার্ক করতাম। তখন কামাল হোসেন সাহেব আমাদের সঙ্গে ছিলেন, তিনি তখন তওবা কাটছিলেন, আমার সঙ্গে আর বের হবেন না বলে।

বুধবার (৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে কয়েকটি উন্নয়ন কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপকূলীয় জেলা সন্দ্বীপের মানুষদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি কিন্তু সন্দ্বীপ বহুবার গেছি। ৯১ সালে ঘুর্ণিঝড় তখন আমি গেলাম, ১৯৮৫ সালে গেলাম। সে সময় ঘূর্ণিঝড়ে খুব ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। সারা সন্দ্বীপ একেবারে জলোচ্ছ্বাসে ভেসে গেছে। কিচ্ছু পাওয়া যেতো না। লবণাক্ত পানিতে সব শেষ। কিচ্ছু নাই। পুকুরের পানি লবণাক্ত। খুবই কষ্ট ছিল। ভোরবেলা পান্তা ভাত, নারকেল কোরা আর শুকনা মরিচ দিয়ে খেয়ে সারাদিন আমরা রিলিফের ওয়ার্ক করতাম। আমার এই রেসিপিটা সবাই মনে রাখেন এটা কিন্তু খেতে ভালো লাগে। পান্তা ভাত নারকেল কোরা আর শুকনা মরিচ পোড়া, খুব মজা খেতে।

সেই সন্দ্বীপ যেন আলোকিত হয়, উন্নত হয়, সেইদিকে লক্ষ্য রেখেই কাজ করার কথা জানান প্রধানমন্ত্রী। বর্তমানে জাতীয় গ্রিডের আওতায় সন্দ্বীপ অন্তর্ভুক্ত হওয়ার দিকটি তুলে ধরে শেখ হাসিনা আরো বলেন, এবার বিদ্যুৎ চলে গেলো। সঙ্গে সঙ্গে অনেক উন্নতি হবে। তার জন্য যা যা করণীয়, আমরা করে দেবো। ছাত্রছাত্রীদের আর চিন্তা করতে হবে না পড়াশোনায়।

স্থানীয় সংসদ সদস্য মাহফুজুর রহমান মিতাকে সেখানে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় করে দেওয়ারও আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। তার আগে সন্দ্বীপ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান মাস্টার তার বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীকে সন্দ্বীপ সফরের আমন্ত্রণ জানান।

প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী, বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নাসিরুল হামিদ বিপু অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন। বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব ড.আহমেদ কায়কাউস অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নের সার্বিক চিত্র তুলে ধরেন। প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন।

সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতা তোফায়েল আহমেদ, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহ, সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, সাবেক উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ ইসলাম আল জ্যাকব এবং সংশ্লিষ্ট এলাকার সংসদ সদস্যরা এ সময় গণভবনে উপস্থিত ছিলেন।

সোনালীনিউজ/এমটিআই