মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬

স্কুল শিক্ষিকা হত্যার রহস্য উদঘাটন

ধর্ষণের পর গলা কেটে হত্যা করা হয় শিক্ষিকা জয়ন্তীকে

চাঁদপুর প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৮ আগস্ট ২০১৯, রবিবার ০৭:১৪ পিএম

ধর্ষণের পর গলা কেটে হত্যা করা হয় শিক্ষিকা জয়ন্তীকে

চাঁদপুর : চাঁদপুরে স্কুল শিক্ষিকা জয়ন্তী চক্রবর্তীর চাঞ্চল্যকর হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। এই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত জামাল হোসেন ও আনিছুর রহমান নামের দুই আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

রোববার (১৮ আগস্ট) বিকেলে চাঁদপুর পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে প্রেস ব্রিফিংকালে এই তথ্য জানান পিবিআই চট্টগ্রাম বিভাগের বিশেষ পুলিশ সুপার মো. ইকবাল।

সাংবাদিকদের ইকবাল বলেন, ঘটনার দিন শহরের ষোলঘর পানি উন্নয়ন বোর্ডের স্টাফ কোয়ার্টারে শিক্ষিকা জয়ন্তী চক্রবর্তী তার বাস ভবনে একা অবস্থান করছিলেন।

এসময় ওই এলাকার ডিসের লাইনম্যান জামাল হোসেন ডিস লাইনের মালিক আনিছুর রহমান মাদক সেবন করে সুকৌশলে ডিসের তার ঠিক করার কথা বলে জয়ন্তীর রুমে ঢুকে।

এসময় তারা উভয়ই তাকে ধর্ষণ করে এবং তা ধামাচাপা দিতে ধারালো ছুরি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে তাদেরকে আটক করতে সমর্থ হয় পিবিআই পুলিশ। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ধারালেরা ছুরিটি উদ্ধার করা হয়েছে।

আসামী জামাল হোসেন পুলিশের কাছে কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় এই ঘটনার সাথে তার সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেছে এবং তার সহযোগী আনিছুর রহমানের কথাও বলেছে।

উল্লেখ্য, চাঁদপুর শহরের ষোলঘর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন জয়ন্তী চক্রবর্তী। গত জুলাই এর ২১ তারিখ নিজ বাসায় নৃশংসভাবে খুন হন।

চাঁদপুর পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে প্রেস ব্রিফিংকালে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শংকর কুমার দাস, ইন্সেপেক্টর কবির আহমদ, মীর মাহবুবুর রহমান, মো. বাচ্চু মিয়া, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শহীদ পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক লক্ষন চন্দ্র সূত্রধর।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue