বুধবার, ১৯ জুন, ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬

ধর্ষণের শিকার সেই ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা, ধর্ষক আটক

পাবনা প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৫ মে ২০১৯, শনিবার ০৪:৩৫ পিএম

ধর্ষণের শিকার সেই ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা, ধর্ষক আটক

ছবি সংগৃহীত

পাবনা: পাবনার ভাঙ্গুড়া ও ঈশ্বরদীতে পৃথক ঘটনায় দুই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এদের মধ্যে একজন অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে মজনু সরকার (৪০) নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ রানা জানান, ভাঙ্গুড়া উপজেলার রাঙ্গালিয়া গ্রামের মজনু সরকার পাঁচ মাস আগে তার বাড়ির পাশের এক কিশোরী স্কুলছাত্রীকে (১৩) বাড়িতে একা পেয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে এবং এ ঘটনা কারও কাছে প্রকাশ করলে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

এতে অন্তঃস্বত্ত্বা হয়ে পড়লে স্কুলছাত্রী বিষয়টি তার বাবা-মা ও মজনুকে জানায়। তখন অভিযুক্ত মজনু গর্ভপাত করাতে ওই ছাত্রীকে গোপনে কিছু ওষুধ সেবন করায়। ওই ওষুধ সেবনের পর সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে গেলো রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় মজনু সরকারকে অভিযুক্ত করে শুক্রবার রাতে থানায় মামলা করেন স্কুলছাত্রীর বাবা। পরে রাতেই তাকে আটক করে পুলিশ।

অপরদিকে, ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী জানান, উপজেলার অরনকোলা পশ্চিমপাড়া গ্রামে গত ২২ মে দুপুরে এক কিশোরীকে (১৫) ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

একই গ্রামের মৃত বেলাল হোসেনের ছেলে আতিকুল ইসলাম (২০) নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে এই ধর্ষণের অভিযোগে শুক্রবার রাতে মামলা হয়েছে।

শনিবার দুপুরে উভয় ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা পাবনা জেনারেল হাসপাতালে সম্পন্ন হয়েছে। গাইনি চিকিৎসক ডা. নার্গিস সুলতানা তাদের পরীক্ষা করেন। প্রাথমিক পরীক্ষায় ধর্ষণের আলামত মিলেছে বলে জানা গেছে।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/জেডআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue