শুক্রবার, ১০ এপ্রিল, ২০২০, ২৬ চৈত্র ১৪২৬

নতুন চরিত্রে নাবিলা

বিনোদন প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার ০২:১৩ পিএম

নতুন চরিত্রে নাবিলা

ঢাকা : বেশ জোরেশোরেই চলছে বাংলাদেশ ও ভারত সরকারের যৌথ প্রযোজনার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিক নির্মাণের প্রস্তুতি। এরই মধ্যে বেশ কয়েকজন অভিনয়শিল্পীও চূড়ান্ত করেছেন ‘বায়োপিক মাস্টার’খ্যাত নির্মাতা মুম্বাইয়ের শ্যাম বেনেগাল।

জানা গেছে, বঙ্গবন্ধুর মা শেখ সায়েরা খাতুনের চরিত্রে অভিনয় করছেন দিলারা জামান এবং হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী চরিত্রে থাকছেন অভিনেতা তৌকীর আহমেদ।

এছাড়া ফজলুর রহমান বাবু অভিনয় করছেন খন্দকার মোশতাকের চরিত্রে। এই তালিকায় এবার যোগ হলো ‘আয়নাবাজি’খ্যাত অভিনেত্রী মাসুমা রহমান নাবিলার নাম। বঙ্গবন্ধুর স্ত্রী ফজিলাতুন্নেছা মুজিব চরিত্রে অভিনয় করতে যাচ্ছেন তিনি। শুক্রবার এফডিসিতে এ চরিত্রের জন্য অডিশনও দিয়েছেন তিনি।

জানা গেছে, শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের কিশোরী বয়সের চরিত্রে অভিনয় করবেন নাবিলা। তার চরিত্রটি হাজির হবে ‘রেণু’ নাম নিয়ে। কারণ বেগম মুজিবকে ভালোবেসে এ নামেই ডাকতেন বঙ্গবন্ধু। চাচাতো ভাই শেখ মুজিবের সঙ্গে শেখ ফজিলাতুন্নেছার যখন বিয়ে হয়, তখন তার বয়স মাত্র তিন। ওই সময় শেখ মুজিব পড়ালেখা করার জন্য বাবার সঙ্গে গোপালগঞ্জে থাকতেন। রেণু থাকতেন গ্রামের বাড়ি টুঙ্গিপাড়ায় শাশুড়ির তত্ত্বাবধানে।

তবে এ বিষয়ে এখনো নিশ্চিত করে কোনো কিছু বলেননি নাবিলা। তিনি বলেন, ‘আমি এখনই এ বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু বলতে চাই না। কেবল অডিশন দিয়েছি বঙ্গবন্ধুর স্ত্রী বেগম মুজিবের চরিত্রে। অন্য কোনো চরিত্রও আসতে পারে। এটা নিতান্তই ছবিটির পরিচালক ও তার টিমের ওপর নির্ভর করছে।’

২০০৬ সালে উপস্থাপনার মাধ্যমে শিল্পভুবনে প্রথম পদচারণা ঘটে তার। সে বছর বাংলাভিশনের ‘এবং ক্লাসের বাইরে’ নামক একটি স্কুল ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান উপস্থাপনার মধ্য দিয়ে মিডিয়ায় নাবিলার পথচলা শুরু।

এরপর তিনি এনটিভির লাইভ কুইজ অনুষ্ঠান ‘জানার আছে বলার আছে’ অনুষ্ঠানেও উপস্থাপনা করেন। বিপিএল উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এবং আইসিসি বিশ্ব টোয়েন্টি-২০ আয়োজনের কাউন্টডাউনে উপস্থাপনা নাবিলাকে এনে দেয় দর্শকপ্রিয়তা।

নাগরিক টিভির ‘বাজল ঝুমুর তারার নূপুর’ অনুষ্ঠানেও উপস্থাপনায় দেখা গেছে নাবিলাকে। উপস্থাপনা নিয়ে তিনি বলেন, ‘উপস্থাপনা ভালো লাগলে করি, না লাগলে করি না। আমি যে কোনো কিছু দর্শকের দৃষ্টি থেকে দেখি। নাটকে গল্প পছন্দ না হলে যেমন কাজ করছি না, তেমনি খুব বড় শো না হলে উপস্থাপনা করি না।’

উপস্থাপনার গণ্ডি পেরিয়ে নাম লেখান মডেলিংয়ে। ২০১৬ সালটি নাবিলার ক্যারিয়ারের উল্লেখযোগ্য একটি বছর। সে বছর নাবিলা আলোয় আসেন আয়নাবাজি চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। এখনো তাকে অনেকে ‘আয়নাবাজি’র নাবিলা বলেই ডাকেন। কিন্তু প্রথম ছবি দিয়ে নাবিলা যেভাবে দর্শকমনে উন্মাদনা তৈরি করেছেন, এরপর আর সেভাবে তাকে বড়পর্দায় দেখা যায়নি।

সিনেমায় ফেরা প্রসঙ্গে নাবিলা বলেন, ‘নতুন ছবির প্রস্তাব পেয়েছি। কিন্তু সত্যি বলতে পছন্দের গল্প এখন পর্যন্ত পাচ্ছি না। মনের মতো গল্প পেলে আবারো চলচ্চিত্রে কাজ করব, এতে কোনো সন্দেহ নেই।’

এ সময় ওয়েব সিরিজে অভিনয় করা প্রসঙ্গে নাবিলা বলেন, ‘ওয়েব সিরিজ বিনোদনের নতুন মাধ্যম। সারা বিশ্বে এটির বেশ জনপ্রিয়তা বাড়ছে। আমাদের দেশেও অনেক তারকা শিল্পী এখন ওয়েব সিরিজে কাজ করছেন।’

সোনালীনিউজ/এমটিআই