মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৭ ফাল্গুন ১৪২৫

নানা আয়োজনে পালিত হলো সরস্বতী পূজা

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, সোমবার ০১:০৬ পিএম

নানা আয়োজনে পালিত হলো সরস্বতী পূজা

ঢাকা : বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা ও নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে রোববার (১০ ফেব্রুয়ারি) সারা পদশে পালিত হয়েছে সরস্বতী পূজা। এদিন সকাল থেকেই সনাতন ধর্মাবলম্বীরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মণ্ডপ ও মন্দিরে বিদ্যা ও জ্ঞানের অধিষ্ঠাত্রী দেবী সরস্বতীর চরণে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন। অজ্ঞতার অন্ধকার দূর করতে কল্যাণময়ী দেবীর পাদপদ্মে প্রণতি জানান তারা।

সরস্বতী পূজা উপলক্ষে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ছিল ছুটি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরস্বতী পূজা উপলক্ষে বাণী দিয়েছেন। বাণীতে তিনি হিন্দু সম্প্রদায়কে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার করে। রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশের মন্দির ও গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে পূজা ছাড়াও অন্য অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে উৎসব পালন করা হয়। বিশেষ করে পুষ্পাঞ্জলি প্রদান, প্রসাদ বিতরণ, ধর্মীয় আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, সন্ধ্যা আরতি, আলোকসজ্জা করতে দেখা যায়।

মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটি ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির মেলাঙ্গনের কেন্দ্রীয় পূজামণ্ডপে পূজার আয়োজন করে। এখানে সকালে প্রতিমা স্থাপনের পর পূজা শেষে পুষ্পাঞ্জলি প্রদান করা হয়। দুপুরে প্রসাদ বিতরণের পর সন্ধ্যা ৬টায় সন্ধ্যা আরতি এবং রাতে আলোকসজ্জা হয়। রামকৃষ্ণ মিশন ও মঠ পূজামণ্ডপেও অনুরূপ অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল, বেগম রোকেয়া হল, শামসুন্নাহার হল, কুয়েত মৈত্রী হল, ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলসহ বিভিন্ন হলে সরস্বতী পূজার আয়োজন করা হয় সাড়ম্বরে। জগন্নাথ হলে কেন্দ্রীয় পূজামণ্ডপ ছাড়াও এবার ৬২টি বিভাগ মিলিয়ে ৭০টি মণ্ডপ স্থাপন করা হয়। এর মধ্যে হল কর্মচারীদের ছয়টি মণ্ডপ রয়েছে। বরাবরের মতো এবারো জগন্নাথ হল পুকুরে চারুকলা বিভাগের মনোজ্ঞ মণ্ডপ ও প্রতিমা স্থাপন করা হয়েছে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৬টি বিভাগের উদ্যোগে পৃথক ৩৩টি পূজামণ্ডপ স্থাপন করা হয়। এছাড়া রমনা কালীমন্দিরসহ দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সরস্বতী পূজা উদযাপিত হয়।

পৃথক পৃথক বিবৃতিতে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদের সভাপতি মেজর জেনারেল (অব.) সি আর দত্ত বীরউত্তম, ঊষাতন তালুকদার, হিউবার্ট গোমেজ, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মিলন কান্তি দত্ত, সাধারণ সম্পাদক নির্মল কুমার চ্যাটার্জী, মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির সভাপতি শৈলেন্দ্র নাথ মজুমদার, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট কিশোর রঞ্জন মণ্ডল, ছাত্র যুব ঐক্য পরিষদের তিন সভাপতি পংকজ সাহা, রবার্ট নিক্সন ঘোষ, রাহুত বড়ূয়া এবং সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার তাপস বল দেশবাসীকে সরস্বতী পূজার শুভেচ্ছা জানান।

সোনালীনিউজ/এমটিআই