মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৭ ফাল্গুন ১৪২৫

নিউজিল্যান্ডে মাশরাফি-তামিমদের ছায়াসঙ্গী রোকন

ক্রীড়া প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, মঙ্গলবার ১০:০৩ এএম

নিউজিল্যান্ডে মাশরাফি-তামিমদের ছায়াসঙ্গী রোকন

আল শাহরিয়ার রোকনের ফেসবুক থেকে নেওয়া

ঢাকা: এক সময় বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় যেকজন ক্রিকেটারের নাম উচ্চারিত হতো, আল শাহরিয়ার রোকন তাদের অন্যতম। খেলোয়াড়ি জীবনে প্রতিভাবান আর স্টাইলিশ হিসেবে বিস্তর সুনাম ছিল তাঁর। ক্রিকেট ছাড়ার পর ২০০৮ সালে নিউজিল্যান্ডে পাড়ি দিয়ে এখন সপরিবারে তিনি ‘সেটলড’ নেপিয়ারে। ক্রিকেট ছাড়লেও, ক্রিকেট ছাড়েনি রোকনকে। তাই তো এখনও গাড় সন্ধি গড়ে আছেন ক্রিকেটের সাথে।

নিউজিল্যান্ডের হকস পে ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনে কোচের ভূমিকায় আছেন দীর্ঘ দিন হলো। তৈরি করছেন কিউইদের ভবিষ্যৎ ক্রিকেট প্রজন্ম। সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে এই মুহুর্তে নেপিয়ারে অবস্থান করছে মাশরাফি বিন মুর্তজার বাংলাদেশ দল। খবর পেয়ে ছুটে চলে এসেছেন টাইগারদের জাতীয় দলের সাবেক ব্যাটসম্যান আল শাহরিয়ার রোকন।  

মাশরাফি রোকনের জাতীয় দলের সাবেক টিম মেট। মুশফিকুর রহীম, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবালদের সঙ্গে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলেছেন। তাই সময় নষ্ট না করে এরই মধ্যে নিজের সাবেক দুই সতীর্থ খালেদ মাসুদ পাইলট এবং মাশরাফি বিন মর্তুজার সঙ্গে দেখা করেছেন রোকন। যেখানে ছিলেন তামিম ইকবাল এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে নিজের পেজে একটি ছবি পোস্ট করেছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ব্যাটসম্যান আল শাহরিয়ার রোকন।

এর আগে ২০১৬-১৭ মৌসুমেও জাতীয় দলের সঙ্গে সফরের প্রায় পুরোটা সময় ছিলেন তিনি। এবারও সিরিজ শুরুর আগেই হাজির হয়েছেন মাশরাফি-তামিমদের সহযোগিতা করতে। মাশরাফি-তামিমদের ছায়াসঙ্গী যেন রোকন।  

গতবারের সফরে সেখানকার কন্ডিশন ও উইকেটের সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে বেশ কার্যকর ভূমিকা রেখেছিলেন রোকন। আশা করা হচ্ছে এবারও জাতীয় দলকে এসব বিষয়ে সহযোগিতা করতে পারবেন জাতীয় দলের সাবেক এ ক্রিকেটার। প্রশ্ন করা হয়েছিল কেমন লাগে বর্তমান বাংলাদেশ দলকে? আল শাহরিয়ারের উত্তর ‘এখনকার ছেলেরা দারুণ ক্রিকেট খেলে। আমার তো খুব ভালো লাগে। জিতলে আরো ভালো লাগত’।   

বাংলাদেশের হয়ে ছোট ক্রিকেট ক্যারিয়ার রোকনের। ১৯৯৯ সালে অভিষেক রঙ্গিন পোষাকে। খেলেছেন ২৯টি ওয়ানডে আর ১৫টি টেস্ট। ঐতিহাসিক অভিষেক টেস্টেও ছিলেন সেরা একাদশে। তার দারুণ ব্যাটিং ধরনে মুগ্ধ হয়েছেন সবাই। কিন্তু, মাত্র ৪ বছর বাংলাদেশের জার্সি গায়ে করেছেন প্রতিনিধিত্ব। ক্যারিয়ারটা কি আরো দীর্ঘ হতে পারতো না। যে ব্যাখ্যা দিলেন রোকন তা অনেকের শিক্ষণীয় হতে পারে ভবিষ্যতের জন্য। ২০০৩ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নেয়ার পর বাংলাদেশের অনেক উত্থান পতন দেখেছেন। তবে, বর্তমানে বাংলাদেশ তার কাছে অসাধারণ একটি দল।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/জেডআই