মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫

নিপুণ রায়সহ দুজনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

আদালত প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার ০১:০৯ পিএম

নিপুণ রায়সহ দুজনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

ঢাকা : বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সংঘর্ষের মামলায় দলটির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য নিপুণ রায় চৌধুরী ও ছাত্রদলের সহসাধারণ সম্পাদক আরিফা সুলতানা রুমার রিমান্ড ও জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। তাদের জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ করার আদেশ দেয়া হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে শুনানি শেষে ঢাকার মহানগর হাকিম মো. তোফাজ্জেল হোসেন এ আদেশ দেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, রাজধানীর পল্টন থানার নাশকতার একটি মামলায় বিএনপি নেত্রী নিপুণ ও রুমাকে আজ ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে হাজির করা হয়।তাদের সাত দিন রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করা হয়। অন্যদিকে নিপুণ রায়ের আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া রিমান্ড বাতিলপূর্বক জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক রিমান্ড ও জামিনের আবেদন খারিজ করে একদিন জেলগেটে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেন।

আদালতে নিপুণের পক্ষে শুনানি করেন সানাউন্নাহ মিয়া ও অ্যাডভোকট নিতাই রায় চৌধুরী (নিপুণের বাবা)। আদালতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও নিপুণ রায়ের শ্বশুর গয়েশ্বর চন্দ্র রায় উপস্থিত ছিলেন।

দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রির সময় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে দলের নেতাকর্মীদের সংঘর্ঘ হয়। এ সময় একাধিক গাড়ি পোড়ানো হয়। এ ঘটনায় ১৫ নভেম্বর রাত ৮টার দিকে রাজধানীর কাকরাইল থেকে নিপুণকে আটক করা হয়। তাকে পল্টন থানার নাশকতার মামলায় গ্রেফতার দেখানো হলে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ডে পাঠানো হয়। এর পর থেকে তিনি কারাগারে রয়েছেন।

এছাড়া কেন্দ্রীয় ছাত্রদল নেত্রী আরিফা সুলতানা রুমাকে একই দিন হাইকোর্ট এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে ১৬ নভেম্বর পল্টন থানায় দায়ের আরেক মামলায় বিএনপি নেতা নিপুণ রায় চৌধুরীসহ সাতজনকে রিমান্ডে নেয়ার আবেদন মঞ্জুর করেছিলেন আদালত।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে- দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ ও জমা নেয়ার সময় গত ১৪ নভেম্বর দুপুরে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে পুলিশের একটি পিকআপ ভ্যানসহ দুটি গাড়ি পুড়িয়ে দেয়া হয়।

এতে পুলিশের পাঁচ কর্মকর্তা, দুজন আনসার সদস্যসহ ২৩ পুলিশ সদস্য আহত হন। ওই ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে পল্টন থানায় পৃথক তিনটি মামলা করে। তিন মামলাতেই আসামি করা হয়েছে নিপুণ রায়কে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue