মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬

নির্জন ক্লাসরুমে শিশুর স্পর্শকাতর স্থানে শিক্ষকের হাত

পিরোজপুর প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২২ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার ০৯:৫৮ পিএম

নির্জন ক্লাসরুমে শিশুর স্পর্শকাতর স্থানে শিক্ষকের হাত

ঢাকা: পিরোজপুর সদর উপজেলার সিকদার মল্লিক ইউনিয়নের পূর্ব সিকদার মল্লিক দারুল কুরআন নূরানী মাদরাসার শিক্ষক শামসুল হক টুকু মৃধার (৬০) বিরুদ্ধে অভিযোগ, ৮ বছরের এক শিশুকে যৌন নিপীড়ন করেছেন তিনি। শিশুটি ওই মাদরাসার দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী।

অভাবের তাড়নায় বাবা ঢাকায় রিকশা চালান, আর মা কাজের জন্য গেছেন সৌদী আরব। মামার বাড়িতে থেকেই লেখাপড়া করে শিশুটি। বুধবার (২১ আগস্ট) অন্য দিনের মতো মাদরাসায় যায় শিশুটি। তবে অন্য দিন বাসায় ভালোভাবে ফিরে আসলেও ওইদিন তার সাথে ঘটে ভয়ঙ্কর এক ঘটনা। তার দিকে কু-নজর পরে লম্পট শিক্ষক শামসুল হক টুকু মৃধার (৬০)।

শিশুটি জানিয়েছে, মাদরাসার বাংলা ক্লাস শেষে খাতা দেখাতে গেলে ক্লাসের অন্য শিক্ষার্থীদের ছুটি দিয়ে শিক্ষক টুকু মৃধা তার স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়। পরে তাকে পাঁচ টাকা দিয়ে ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য ভয়ভীতি দেখায়।

শিশুটির নানি জানান, শিশুটির বাবার বাড়ি পাশের সিকদার মল্লিক গ্রামে। বাবা ঢাকায় রিকশা চালান। মা গত কয়েক মাস হলো কাজের জন্য সৌদী আরব গেছেন। শিশুটি মামার বাড়িতে থেকে ওই মাদরাসায় দ্বিতীয় শ্রেণিতে লেখাপড়া করে। বুধবার মাদরাসা থেকে ফিরে সে বিষয়টি তার মামীকে জানায়। তখন আমরা মাদরাসা সুপারের কাছে গেলে তিনি বিষয়টি দেখবেন বলে বাড়ি পাঠিয়ে দেন।

তিনি আরও জানান, টুকু মৃধা একজন লম্পট প্রকৃতির লোক। এ রকম জঘন্য কাজ সে আগেও কয়েকবার করেছে। আমরা এর বিচার চাই।

বিষয়টি নিয়ে পিরোজপুর সদর থানার ওসি এসএম জিয়াউল হক জানান, ঘটনাটি শুনে বিকেলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue