শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

নির্বাচনে হারার পর যা বললেন মৌসুমী-ওমর সানী

বিনোদন ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৬ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার ০৫:৩৩ পিএম

নির্বাচনে হারার পর যা বললেন মৌসুমী-ওমর সানী

ঢাকা : বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে টানা দ্বিতীয়বারের মতো সভাপতি নির্বাচিত হলেন মিশা সওদাগর এবং সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। দ্বিতীয়বারের মতো মিশা-জায়েদের জয়ের মাধ্যমে শিল্পী সমিতির ইতিহাসে প্রথমবার পুরো প্যানেল নির্বাচিত হয়েছে।

শুক্রবার (২৫ অক্টোবর) দিনব্যাপী উৎসব মুখর পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। 

এফডিসিতে সকাল ৯ টায় শুরু হওয়া ভোট গ্রহণ শেষ হয় বিকেল ৫ টা ২৬ মিনিটে। রাত ২ টায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার ইলিয়াস কাঞ্চন ফলাফল ঘোষণা করেন। নির্বাচিতরা ২০১৯-২০২১ মেয়াদে দায়িত্ব পালন করবেন। এবারের নির্বাচনে মোট ভোটার ৪৪৯। সম্পাদকীয় পদে প্রাপ্ত ভোট ৩৮৬, বৈধ ব্যালট-৩৫২, বাতিল ব্যালট-৩৪।

সভাপতি পদে লড়েছেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী (১২৫) ও জনপ্রিয় খলনায়ক মিশা সওদাগর (২২৭)। সহ-সভাপতির দুটি পদে জয়ী হয়েছেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল (৩১১), রুবেল (২৯৩)। পরাজিত প্রার্থী নানা শাহ পেয়েছেন ৯৮ ভোট।

আর এবারের বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনের মধ্যমনি ছিলেন জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা মৌসুমী। নির্বাচনের শুরু থেকে ভোটকেন্দ্রে উপস্থিতি ছিলেন মৌসুমী। কিন্তু সম্ভাবনা জাগিয়েও ভোট যুদ্ধে শেষ পর্যন্ত পরাজয় বরণ করতে হয়েছে ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ছবির এই নায়িকাকে। 

শিল্পী সমিতির নির্বাচনে ২২৭ ভোট পেয়ে দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচিত হয়েছেন মিশা সওদাগর এবং মৌসুমী পেয়েছেন ১২৫ ভোট।

এদিকে, নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় মৌসুমী বলেন, ‘আমি শিল্পীদের যে ভালোবাসা পেয়েছি তার জন্য কৃতজ্ঞ। শিল্পীদের জন্য আমার দরজা সব সময় খোলা থাকবে।’

মৌসুমীর স্বামী জনপ্রিয় অভিনেতা ওমর সানী বলেন, ‘ফলাফল যা হয়েছে তা আমাদের আগে থেকেই জানা। আমি যখন বিগত সময় নির্বাচন করি আমার সঙ্গেও এমন হয়েছিল। এর বেশি কিছু এখন আর বলার নেই।’

এছাড়াও নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার সময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘জয় পরাজয় পরের বিষয়, শিল্পী সমিতির ইতিহাসে এই প্রথম কোনো অভিনেত্রী সভাপতি পদে অংশ নিলেন, এটাই অনেক বড় ব্যাপার।’

সোনালীনিউজ/এমএএইচ