বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০১৯, ৬ আষাঢ় ১৪২৬

নৃত্যশিল্পীদের ওপর চড়াও ৫০০ পুরুষ!

বিচিত্র সংবাদ ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১০ জুন ২০১৯, সোমবার ০৫:৩৫ পিএম

নৃত্যশিল্পীদের ওপর চড়াও ৫০০ পুরুষ!

ঢাকা: ঈদের অনুষ্ঠান ঘিরে চরম অসভ্যতার সাক্ষী রইল ভারতের আসামের ছয়গাঁও। যেখানে নারীদের রীতিমতো পণ্য মনে করে জামাকাপড় খুলে নাচার জন্য বাধ্য করা হল। এমনকি নারীদের মারধরের মতো অভিযোগও উঠল।

ঘটনাটি ঘটেছে আসামের কামরূপ জেলার ছয়গাঁওয়ে। কামরুপ নিয়ে অনেক কিংবদন্তী রয়েছে। কামরুপ নিয়ে নানা ধরনের যৌনতার গল্প প্রচলিত আছে। খবর সংবাদ প্রতিদিনের।

শনিবার (৮ জুন) ঈদ পরবর্তী সময়ে এলাকার মানুষের মনোরঞ্জনের স্বার্থে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। অনুষ্ঠান দেখতে হাজির হয়েছিলেন প্রায় কয়েকশো দর্শক। অনুষ্ঠানে নাচগান হচ্ছিল নির্ধারিত পরিকল্পনা মতোই। কিন্তু হঠাৎই মাঝপথে প্রায় ৫০০ জনেরও বেশি পুরুষ উত্তেজিত হয়ে পড়ে। স্টেজে তখন নারীদের একটি দল নৃত্য পরিবেশন করছিলেন। আচমকাই ওই নারীদের পোশাক খুলে নাচ করার দাবি তোলে ওই ৫০০ জন পুরুষ। কেউ তো সোজা স্টেজে উঠে পড়ে। তারপর নারীদের জামাকাপড় ধরে টানাটানি শুরু করে।

কোনওমতে সম্ভ্রম বাঁচিয়ে ঘটনাস্থল থেকে বেরিয়ে আসতে সক্ষম হন ওই নারীরা। গাড়িতে উঠে এলাকা ছাড়েন তাঁরা। কিন্তু গন্ডগোল এখানেই থেমে যায়নি। তাদের কথা না শুনে ওই নারীরা গাড়িতে উঠে যাওয়ায় ৫০০ জন পুরুষ গাড়ির উপরই হামলা চালায়। পাথর ছোঁড়া হয় গাড়িতে। গাড়ি এতে সামান্য ক্ষতিগ্রস্ত হলেও নারীরা কেউ তেমন আহত হননি। ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান তাঁরা।

ঘটনার পর ছয়গাঁও থানায় অনুষ্ঠানের আয়োজকরা অভিযোগ দায়ের করেন। তাঁদের অভিযোগের ভিত্তিতে এখনও পর্যন্ত দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাদের নাম শাহরুখ খান ও সুবাহন খান। অভিযুক্তরা কোচবিহার জেলা থেকে এসেছিল বলে আয়োজকরা জানিয়েছেন।

সূত্রের খবর, অনেক চড়া দামে বিক্রি করা হয়েছিল অনুষ্ঠানের ঈদের অনুষ্ঠানের টিকিট। তা সত্ত্বেও তাতে নিরাপত্তা ব্যবস্থার এমন বেহাল ছবি উঠে এল। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

সোনালীনিউজ/এমএইচএম

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue