রবিবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৯, ৫ কার্তিক ১৪২৬

পরকীয়া প্রেমিকা বিয়ের চেষ্টা শিক্ষকের, বাধা দেয় স্ত্রী, অতঃপর...

লালমনিরহাট প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৮ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার ১০:৩৮ পিএম

পরকীয়া প্রেমিকা বিয়ের চেষ্টা শিক্ষকের, বাধা দেয় স্ত্রী, অতঃপর...

প্রতীক ছবি

লালমনিরহাট: প্রেমিকাকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক সহকারী শিক্ষককে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৮ জুন) সকালে পুলিশ ধর্ষনচেষ্টার মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে মাসুদ রানাকে জেল-হাজতে প্রেরণ করেন। অভিযুক্ত উপজেলার কিসামত ধওলাই সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

শিক্ষক মাসুদ রানাহাতীবান্ধা উপজেলার টংভাঙ্গা ইউনিয়নের পশ্চিম বেজগ্রাম ডাকালিবান্ধা এলাকার তরিফ উদ্দিনের পুত্র ও দুই সন্তানের জনক। হাতীবান্ধা থানার ওসি উমর ফারুক জানান, রোববার রাতে উত্তেজিত জনতা শিক্ষক মাসুদকে আটক করে পুলিশে দেয়। কিন্তু সোমবার সারা দিন কোনো অভিযোগ বা আপোষ কপি পাওয়া যায়নি।

সোমবার (১৭ জুন) মধ্যরাতে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ধর্ষনচেষ্টার অভিযোগ করেন তার প্রেমিকা। ফলে পুলিশ হেফাজতে থাকা ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তার দেখিয়ে মঙ্গলবার সকালে জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

স্থানীয়রা ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, দুই সন্তানের জনক শিক্ষক মাসুদ রানার সাথে ধওলাই গাঁওচুলকা এলাকার এক কলেজ ছাত্রীর দীর্ঘ দিন ধরে পরকীয়া প্রেম চলে আসছে। রোববার (১৬ জুন) রাতে শিক্ষক মাসুদ তার প্রেমিকার বাড়ি গেলে স্থানীয় লোকজন আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে জনতার হাতে আটক শিক্ষক মাসুদ রানাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

সোমবার সকালে প্রেমিকা ও প্রেমিক মাসুদ রানা দুইজনে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু এতে বাধ সাজে শিক্ষক মাসুদের স্ত্রী।

পরে মধ্য রাতে প্রেমিকা কলেজ ছাত্রী তার প্রেমিক স্কুল শিক্ষক মাসুদ রানার বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে মামলা করেন। ফলে পুলিশ হেফাজতে থাকা স্কুল শিক্ষক মাসুদ রানাকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে মঙ্গলবার সকালে লালমনিরহাট জেল-হাজতে প্রেরণ করে হাতীবান্ধা থানা পুলিশ।

সোনালীনিউজ/এমএইচএম

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue