বুধবার, ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে বিশ্ব বডিবিল্ডিং চ্যাম্পিয়নশিপে হাসিব হলি

ক্রীড়া প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৮ জুন ২০১৮, বৃহস্পতিবার ০৩:২১ এএম

প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে বিশ্ব বডিবিল্ডিং চ্যাম্পিয়নশিপে হাসিব হলি

ঢাকা: কোন ধরণের সরকারি বা বেসরকারি পৃষ্ঠপোষক ছাড়াই একজন ক্রীড়াবিদ দেশের জন্য সম্মান বয়ে আনতে পারে তার উজ্জল দৃষ্টান্ত বডি বিল্ডার হাসিব হলি। একাধারে তিনি সাবেক ‌‘মিস্টার বাংলাদেশ’, ব্যক্তিগত প্রচেষ্টায় প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে ‘নাব্বা ডব্লিউএফএফ এ্যামেচার এশিয়ান বডিবিল্ডিং প্রতিযোগিতায়’ স্বর্ণপদক জিতেছেন। এবার লক্ষ্য ‘মিস্টার ইউনিভার্স’ খেতাব। সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখে সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিতব্য মিস্টার ইউনিভার্স ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নিতে যাচ্ছেন বাংলাদেশের এই বডি বিল্ডার।

আগামী ৩০ জুন সিঙ্গাপুরে শুরু হচ্ছে মিস্টার ইউনিভার্স ওয়ার্ল্ড বডি বিল্ডিং চ্যাম্পিয়নশিপ। প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে বডি বিল্ডিংয়ের বৃহৎ এই প্রতিযোগিতায় অশ নিতে শুক্রবার (২৯ জুন) দেশ ছাড়ছেন হাসিব হলি। তার আগে বিস্তারিত জানাতে বুধবার রাজধানীর দিলু রোডের মিডিয়া ট্রেনিং ইন্সটিটিউটে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে মিস্টার ইউনিভার্স ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে নিজের লক্ষ্যের কথা জানান হাসিব হলি। তিনি বলেন, ‘মিস্টার ইউনিভার্স প্রতিযোগিতার এটা ৫০তম আসর। এই প্রথম এশিয়ায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বডি বিল্ডিংয়ের বৃহৎ এই প্রতিযোগিতা। প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে আমি অংশ নিতে যাচ্ছি। এটা আমার জন্য যেমন রোমাঞ্চের, তেমনি ভীষণ গর্বেরও। আমার এই শরীর বাংলাদেশের জন্য। এই আসরে ৫০ দেশের অসংখ্য বিশ্বমানের বডিবিল্ডার অংশ নিচ্ছে। আমি নিজের সেরাটা দিয়েই খেলবো। লক্ষ্য হবে প্রথম থেকে ষষ্ঠ স্থানের মধ্যে থাকা।’

সাবেক ‌মিস্টার বাংলাদেশ খেতাব জয়ী এই বডি বিল্ডার জানান, ‘এই প্রতিযোগিতা এশিয়াতে এবং সিঙ্গাপুরে হওয়াতে শরীর প্রস্তুত করতে স্বল্প সময়, বাংলাদেশে থেকে কম দূরত্ব এবং সব খরচ কম বলেই অংশ নেয়া সম্ভব হচ্ছে। তাছাড়া সিঙ্গাপুর আমার চেনা এবং লাকি ভেন্যু। এর আগে সেখানে এশিয়ান পর্যায়ে দু’বার খেলে একবার স্বর্ণ জেতার পাশাপাশি একবার চতুর্থ হয়েছি।’

‘মিস্টার ইউনিভার্স’ খেতাব জিততে গত আট মাস ধরে প্রস্তুতি নিয়েছেন হলি। এক্ষেত্রে তার ব্যক্তিগত খরচ হয়েছে প্রায় আট লাখ টাকা। যদি প্রতিযোগিতার আয়োজকরা অনুমোদন দেয় তাহলে এ্যাথলেটিক বডিবিল্ডিং ক্যাটাগরি ছাড়াও বাংলাদেশের প্রথম সার্টিফাইট ট্রেনার হলি অংশ নেয়ার চেষ্টা করবেন ‘ম্যানস ফিজিক’ ক্যাটাগরিতেও। প্রতিযোগিতায় হাসিববে পৃষ্ঠপোষকতা করছে নাভানা গ্রুপ।

সংবাদ সম্মেলনে হাসিব হলির বাবা, সাবেক জাতীয় বডিবিল্ডার ও বক্সার নিজাম উদ্দিন এবং নাব্বা ওয়ার্ল্ড ফিটনেস বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র মিয়া মজিবুর রহমান।

উল্লেখ্য, নারায়নগঞ্জের খন্দকার তাইহান তাবাছসির সোয়াদ-ও এই আসরে অংশ নিচ্ছেন। ভিসা জটিলতায় শুরুতে নিশ্চিত না থাকলেও শেষ মুহূর্তে তিনি ভিসা পান। যদিও সংবাদ সম্মেলনে আসতে পারেননি তিনি। সোয়াদ বাংলাদেশের প্রথম স্বীকৃত জিম প্রশিক্ষক হাসিবের কাছ থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। হাসিব বাংলাদেশে একটি বডিবিল্ডিং ইন্সটিটিউট তৈরি করেছেন।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/জেডআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue