শুক্রবার, ২৪ মে, ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, সালিশে মা-ছেলেকে জুতাপেটা

সাভার প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৭ এপ্রিল ২০১৯, শনিবার ০৩:১৭ পিএম

প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, সালিশে মা-ছেলেকে জুতাপেটা

সাভার : প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়ার অভিযোগে ঢাকার ধামরাই উপজেলায় গ্রাম্য সালিশে মা ও ছেলেকে প্রকাশ্যে ১০১টি জুতাপেটা ও জুতার মালা পরিয়ে গ্রামে ঘোরানো হয়েছে। এ ঘটনায় স্থানীয় কুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) মেম্বরসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার (২৭ এপ্রিল) সকালে তাদের গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে গতকাল শুক্রবার উপজেলার কুল্লা ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

গ্রেপ্তরকৃতরা হলেন-ওই গৃহবধূর স্বামী আসলাম হোসেন, শ্বশুর কফিল উদ্দিন, বাবা হীরা নদী, জুলহাস উদ্দিন, শহিদুল ইসলাম ও আরও একজন।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই এলাকার এক প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে বানেশ্বর এলাকার নুরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তির অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে-এমন অভিযোগ এনে ওই গৃহবধূর বাড়িতে শুক্রবার আলোচনায় বসে। এ সময় কুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে বিচারের জন্যে গঠন করা হয় কথিত জুরি বোর্ড।

সালিশে নুরুল ইসলাম ও তার মাকে দোষী সাব্যস্ত করে প্রকাশ্যে ১০১টি জুতাপেটা ও জুতার মালা পরিয়ে গ্রাম প্রদক্ষিণ করা হয়। এমনকি মুঠোফোনে রায় কার্যকর করার দৃশ্য ধারণ করে তা ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় নুরুল ইসলামের মেয়ের জামাই সোহাগ মিয়া থানায় মামলা করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা। তিনি বলেন, ‘দেশে আইন রয়েছে। এভাবে সালিশ ডেকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন বেআইনি।’

ওসি আরও বলেন, ‘সালিশ ডেকে নারীকে বিবস্ত্র করে তার সম্মানহানি এবং মধ্যযুগীয় কায়দায় মারধর করার পৃথক দুইটি মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ছাড়া অন্যদের গ্রেপ্তারের অভিযান চলছে।’

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue