মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন নিয়ে কথা বললেন গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ৩০ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার ০৬:১৮ পিএম

প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন নিয়ে কথা বললেন গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা: সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের ১০ম ও সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেডের দাবি জানিয়ে অনেক দিন ধরেই আন্দোলন করে আসছিলেন এ স্তরের শিক্ষকরা। বিভিন্ন সময়ে মানববন্ধন, অবস্থান কর্মসূচি, আমরণ অনশন এবং সমাবেশের আয়োজন করে তাদের দাবি জানিয়েছেন।

তারই ধারাবাহিকতায় প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা বর্জন ঘোষণা করলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আশ্বাসে সেই কর্মসূচি থেকে সরে আসেন শিক্ষকরা।

এরপর গত ৭ নভেম্বর অর্থ মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব সাদিয়া শারমিন স্বাক্ষরিত একটি নির্দেশনা গত ১২ নভেম্বর প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিবের কাছে পাঠানো হয়। ওই নির্দেশনায় প্রধান শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড এবং সহকারী শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেড দেওয়ার কথা জানানো হয়। কিন্তু এই গ্রেড শিক্ষকরা প্রত্যাখ্যান করেন। তাদের দাবি, প্রধান শিক্ষকদের ১০ম ও সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড দিতে হবে। গত ১৫ নভেম্বর প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের পুরানা পল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংগঠনটির নীতিনির্ধারণী কমিটির এক জরুরি সভায় নতুন গ্রেড প্রত্যাখ্যান করার ঘোষণা দেওয়া হয়। একই সঙ্গে নতুন করে আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারিও দেন তারা।

শিক্ষকদের মতের বিরুদ্ধে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে কি-না জানতে চাইলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, শিক্ষকদের নারাজ করে কিছু করতে চাচ্ছি না। আমাদের মন্ত্রণালয় থেকে প্রস্তাব দেওয়া ছিল। অর্থ মন্ত্রণালয় ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে যে ধারণা দেওয়া হয়েছে, সে অনুযায়ী করেছি। পরে আমরা রিভিউ করেছি। আইনি মতামত দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি আতিকুর রহমান আতিক বলেন, নতুন গ্রেড আমরা প্রত্যাখ্যান করেছি। নতুন যে গ্রেড দেওয়া হয়েছে তাতে বৈষম্য আরও বাড়বে। আমরা কোনো অযৌক্তিক দাবি করিনি। যৌক্তিক দাবি মেনে নিতে হবে। না হলে আন্দোলন আরও কঠোর হবে।

সোনালীনিউজ/এইচএন

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue