শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

ফিটনেসবিহীন গাড়ি না রাখার নির্দেশ

আদালত প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৩ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার ০৪:২০ পিএম

ফিটনেসবিহীন গাড়ি না রাখার নির্দেশ

ঢাকা : দুই মাসের মধ্যে লাইসেন্স নবায়ন না করলে ফিটনেসবিহীন ৪ লাখ ৭৯ হাজার ৩২০টি গাড়ির চলাচল বন্ধ করে দিতে বিআরটিএকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আপনাদের নাকের ডগার ওপর দিয়ে কীভাবে লাখ লাখ ফিটনেসবিহীন গাড়ি চলে-বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষকে (বিআরটিএ) উদ্দেশ করে এমন প্রশ্ন করেছেন হাইকোর্ট। এ সময় রাস্তায় কোনো ফিটনেসবিহীন গাড়ি না রাখার নির্দেশন দিয়েছেন আদালত।

ফিটনেসবিহীন গাড়ি নিয়ে বিআরটিএর দাখিল করা প্রতিবেদনের ওপর শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এমন মন্তব্য করেন।

১ আগস্ট থেকে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে দেশের ফিটনেসহীন সকল পরিবহনের লাইসেন্স নবায়নেরও নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। এ সময়ের মধ্যে লাইসেন্স নবায়ন করা না হলে আগামী ১৫ অক্টোবর পরিবহনগুলো জব্দের নির্দেশ দেয়া হবে বলেও সতর্ক করা হয়।

শুনানিতে ফিটনেসহীন সকল পরিবহনের লাইসেন্স নবায়নে আদালতের নির্দেশের পাশাপাশি আদালতের এই আদেশ ব্যাপকভাবে পত্রিকা ও টেলিভিশনে প্রচারের নির্দেশ দেয়া হয়। একইসঙ্গে আদালতের আদেশটির কতটুকু বাস্তবায়ন করা হয়েছে সে বিষয়ে বিআরটিএ চেয়ারম্যান ও পুলিশের আইজিকে প্রতিবেদন আকারে আদালতকে জানানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক। বিআরটিএ এর পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার মঈন ফিরোজী ও মো. রাফিউল ইসলাম।

এর আগে, বিআরটিএর পক্ষ থেকে পরিবহনের বিষয়ে হাইকোর্টে প্রতিবেদন দাখিল করা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, সারাদেশে লাইসেন্সধারী ফিটনেসবিহীন গাড়ি চালানোর দায়ে চলতি বছরে ৬ কোটি ৭২ লাখ ২৩ হাজার ৩৯২ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এ ছাড়া ৩৯ হাজার ৮৩৭টি মামলা করা হয়েছে। একই সময়ে ফিটনেসবিহীন ২১৪টি গাড়ি ডাম্পিং করা হয়েছে। কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে ৭২৮ চালককে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, সারাদেশে লাইসেন্স নিয়ে ফিটনেস নবায়ন না করা গাড়ির সংখ্যা ৪ লাখ ৭৯ হাজার ৩২০টি।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue