বুধবার, ১৭ জুলাই, ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

বাংলাদেশি নাগরিকের কাছে ২২ হাজার ভুয়া ব্রান্ডের শার্ট

নিউজ ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১২ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার ০৬:৫৭ পিএম

বাংলাদেশি নাগরিকের কাছে ২২ হাজার ভুয়া ব্রান্ডের শার্ট

ঢাকা : মালয়েশিয়ায় মোহাম্মদ জনি ভূঁইয়া (২৪) নামে এক পোশাক দোকানের সহকারীকে ভুয়া ব্রান্ডের শার্ট রাখার অপরাধে দেশটির সেশন কোর্টে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে।

অভিযোগে বলা হয়েছে, বাংলাদেশি নাগরিক মোহাম্মদ জনি ভূঁইয়ার কছে ২২ হাজার শার্ট পাওয়া যায়। এই শার্টগুলো ভুয়া ব্রান্ডের নামে নামকরণ করা। শার্টগুলো মূল্য প্রায় অর্ধেক মিলিয়ন রিংগিত।

তার কাছে পাওয়া ভুয়া ব্রান্ডের শার্টগুলোর মধ্যে পুমা ব্রান্ডের চার হাজার ছয়শ ২৫টি, লেভি ব্রান্ডের দুই হাজার আটশ ৫০টি, অ্যাডিডাস ব্রান্ডের সাত হাজার ৪০টি, নাইক ব্রান্ডের দুই হাজার সাতশ ৮০টি, গুস্সি ব্রান্ডের আটশ নয়টি, টসি হিলফিজার ব্রান্ডের দুই হাজার ছয়শ ৭০টি এবং রিবোক ব্রান্ডের এক হাজার একশ ৬০টি শার্ট পাওয়া যায়। এই শার্টগুলোতে ব্রান্ডগুলোর ব্যাপারে মিথ্যা বর্ণনা দেওয়া হয়েছিল।

মালয়েশিয়ার জালান কেনেনগা নামক স্থানে গত ৮ এপ্রিল এই ঘটনা ঘটে। পরে তাকে দেশটির ট্রেড ডিসক্রেপসন আইন ২০১১ এর সেকশন নাম্বার ৮ নংয়ের ২ ধারার সি অনুযায়ী অভিযুক্ত করা হয়। একি আইনের সেকশন নাম্বার ৮ নংয়ের ২ ধারার বি অনুযায়ী প্রতিটি ভুয়া শার্টের জন্য ১০ হাজার রিংগিত জরিমানা বা তিন বছরে জেল হতে পারে অথবা উভয় দণ্ড হতে পারে মোহাম্মদ জনি ভূঁইয়ার।  

শার্ট, প্যান্ট এবং মাথার টুপির ব্রান্ডগুলোর ব্যাপারে মিথ্যা বর্ণনা দেওয়ায় একটি কোম্পানি এবং তার পরিচালককেও অভিযুক্ত করা হয়েছে। কোম্পানিটির নাম মিস্টার টপম্যান ফ্যাশন এবং এটির পরিচালক ও চিং চুং। কোম্পানিটির কাছে পাঁচ হাজার চারশ ৮৬টি ভুয়া পণ্য, ২৬ হাজার আটশ ৮৮টি শার্ট, দুই হাজার দু’শ ২৪টি টুপি অ্যাডিডাস, টমি হিলফিজার, পুমা ব্রান্ডের নামে ভুয়া নামকরণ করা পণ্য পাওয়া যায়।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue