মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬

বাজেটের গুরুত্বপূর্ণ অধিবেশনের একদিনও সংসদে যাননি মাশরাফি

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৩ আগস্ট ২০১৯, শুক্রবার ০৩:১৪ পিএম

বাজেটের গুরুত্বপূর্ণ অধিবেশনের একদিনও সংসদে যাননি মাশরাফি

ঢাকা: জাতীয় সংসদের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অধিবেশন হলো বাজেট অধিবেশন। এটি চলাকালীন একদিনও সংসদে উপস্থিত হননি নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজা।

সংসদের এই দীর্ঘ অধিবেশন ২১ কার্যদিবস চললেও তিনিসহ মোট তিন এমপি সংসদে যাননি। তাদের দুজন আওয়ামী লীগের এবং একজন জাতীয় পার্টির এমপি।

 সংসদের নোটিশ শাখা সূত্রে জানা গেছে, চলমান একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় অধিবেশন গত ১১ জুন শুরু হয়ে ১১ জুলাই পর্যন্ত চলে। এর মধ্যে সংসদ অধিবেশনে মোট ২১টি বৈঠক দিবস ছিল। অধিবেশনকালে সদস্যদের উপস্থিতির গড় ছিল ২৫৯ জন। সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন উপস্থিতি ছিল যথাক্রমে ৩০৬ জন (১৩ জুন) এবং ১৫৯ জন (২২ জুন)। অধিবেশনে আওয়ামী লীগের মাশরাফি বিন মর্তুজা (৯৪ নড়াইল-১), বেগম সিমিন হোসেন রিমি (১৯৭ গাজীপুর-৫) এবং জাতীয় পার্টির হুসেইন মুহম্মদ এরশাদসহ সর্বমোট তিনজন অনুপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, ওই সময় ক্রিকেট বিশ্বকাপ চলার কারণে সংসদে যেতে পারেননি মাশরাফি। অন্য দুজন শারীরিকভাবে অসুস্থ ছিলেন। পরে অবশ্য অসুস্থতার কারণে জাতীয় পার্টির প্রেসিডেন্ট ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যু হয়।

এ বিষয়ে মাশরাফি বিন মর্তুজাকে বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) বেশ কয়েকবার ফোন দেয়া হলেও তার নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়। তবে সংসদের ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, মাশরাফি বিন মর্তুজা আমাদের জাতীয় বীর। তিনি বাংলাদেশের ভাবমূর্তিকে বিশ্বে উজ্জ্বল করেছেন। তিনি কেন সংসদে যাননি, সে বিষয়ে খোঁজ নিয়েছি। সে সময় ক্রিকেট বিশ্বকাপ চলায় তিনি সংসদে যেতে পারেননি। খেলার কারণে দেশের বাইরে ছিলেন মাশরাফি।

জানা গেছে, এ অধিবেশন শুরুর পর ১৩ জুন চলতি অর্থবছরের বাজেট উত্থাপন হয়। এরপর মোট ২৬৯ জন সংসদ সদস্য ৫৫ ঘণ্টা ৩৬ মিনিট বাজেট আলোচনায় অংশ নেন, যা একটি রেকর্ড। এর আগে এত এমপি এত সময় ধরে বাজেটের ওপর আলোচনার সুযোগ পাননি। অথচ গত বছর সম্পূরক বাজেটসহ মোট বাজেটের আলোচনায় ২২৩ এমপি অংশ নেন। তারা মোট ৫৫ ঘণ্টা ৫৫ মিনিট আলোচনা করেন।

বড় ধরনের কোনো সংশোধনী ছাড়াই ২৯ জুন অর্থবিল ২০১৯ পাস হয়। জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রীর পক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিলটি পাসের প্রস্তাব করলে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়। বাজেট পাস হয় ৩০ জুন। এ অধিবেশনে সাতটি বিল পাস হয়। এর মধ্যে আলোচিত আইনশৃঙ্খলা বিঘ্নকারী অপরাধ (দ্রুত বিচার) (সংশোধন) বিল ২০১৯ রয়েছে।

সোনালীনিউজ/এইচএন

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue