শনিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

বালিকাকে উত্ত্যক্তের অভিযোগে মোরগ গ্রেপ্তার!

বিচিত্র সংবাদ ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, বৃহস্পতিবার ০৫:০৮ পিএম

বালিকাকে উত্ত্যক্তের অভিযোগে মোরগ গ্রেপ্তার!

ঢাকা: তার অপরাধ, সে এক বালিকার সঙ্গে অভব্য আচরণ করেছে। আর সেই কারণেই গ্রেপ্তার হতে হল ভারতের মধ্যপ্রদেশের এক মোরগকে।

ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের শিবপুরী জেলায়। জানা গেছে, মোরগটির মালিককে সস্ত্রীক আটক করেছে স্থানীয় পুলিশ। সেই সঙ্গে মোরগটিকেও থানায় আটকে রাখা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ঋতিকা নামে পাঁচ বছর বয়সি বালিকাটি তাদের বাড়ির সামনে খেলছিল। সেই সময়েই মোরগটি তাকে আক্রমণ করে। তার গালে বার বার ঠোকরাতে শুরু করে। ঋতিকা রক্তাক্ত অবস্থায় কান্নাকাটি শুরু করলে তার মা পুনম কুশবাহা এসে তাকে উদ্ধার করেন এবং তাকে নিয়ে থানায় যান। পুনম সেই মোরগ ও তার মালিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।

পুনম জানিয়েছেন, তার প্রতিবেশী পাপ্পু ও তার স্ত্রীর পোষা এই মোরগের আচার-আচরণ মোটেই সুবিধার নয়। সে বেশ কিছু দিন ধরেই তার শিশুকন্যা ঋতিকাকে জ্বলাতন করেছে। তার জ্বালায় ঋতিকা বাড়ির বাইরে বেরতে পর্যন্ত ভয় পায়। তিনি বার বার পাপ্পুদের এ নিয়ে নালিশ জানালেও কোনো ফল হয়নি। আদরের মোরগ সম্পর্কে কোনো অভিযোগ পাপ্পু ও তার স্ত্রী কানে তুলতেই রাজি নন। পুনমের মতে, গত পাঁচ মাসে চার বার মোরগটি তার মেয়েকে আক্রমণ করেছে।

থানায় অভিযোগ করার পরে পুলিশ মোরগ সমেত পাপ্পু ও তার স্ত্রীকে ডেকে পাঠায়। মোরগটিকে আটক করা হলে পাপ্পুর স্ত্রী ভেঙে পড়েন। এবং তিনি জানান, তাকে জেলে পুরে মোরগকে ছেড়ে দেয়া হোক। পরে তিনি অবশ্য মোরগটিকে ‘গৃহবন্দি’ করে রাখার প্রতিশ্রুতি দেন।

জানা যায়, পাপ্পুরা নিঃসন্তান। কয়েক বছর আগে মোরগটিকে তারা মাত্র ৫ টাকায় কিনেছিলেন। তার পর থেকে তাকে তারা সন্তান স্নেহেই লালন করছেন।

পরে অবশ্য পুনম ও পাপ্পুর পরিবার নিজেদের মধ্যেই আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি মিটিয়ে নেন। পুলিশ বিষয়টি নিয়ে আর এগোয়নি। সূত্র: এবেলা

সোনালীনিউজ/এমএইচএম

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue