বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬

বাসরঘর থেকে বর উধাও, যা বললো পুলিশ

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রবিবার ০৭:৫৮ পিএম

বাসরঘর থেকে বর উধাও, যা বললো পুলিশ

মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় বাসর রাতে নববধূকে রেখে বাথরুমে যাওয়ার কথা বলে বর আব্দুল কাদির ওরফে শুকুর (২৭) নিখোঁজ হয়েছিলেন। শুক্রবার রাতে উপজেলার পশ্চিম জুড়ী ইউনিয়নের পূর্ব বাছিরপুর চাক্কাটিলা গ্রাম থেকে তিনি নিখোঁজ হন। 

জানাগেছে, নিখোঁজ বর আব্দুল কাদের একই গ্রামের চরু মিয়ার ছেলে ও স্থানীয় একটি মাদ্রাসার শিক্ষক। ওই বরকে ১৯ ঘণ্টা পর শনিবার সন্ধ্যায় বড়লেখা উপজেলার দক্ষিণভাগ ইউনিয়নের কাইয়াছড়া এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এসময় তার হাত বাঁধা ছিলো বলে পরিবারের দাবি।

এ বিষয়ে বরের ভাই নুর ইসলাম মুঠোফোনে বলেন, আমার ভাইকে একজন ইমাম পেয়ে আমাদের জানিয়েছেন। আমরা দেখেছি তার হাত বাঁধা ও শরীরের বিভিন্নস্থানে বাঁধার চিহ্ন রয়েছে। আমার ভাই (বর আব্দুল কাদির) বলেছে চারজন যুবক তাকে বাঁধার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে আমার ভাই ড্রেনে পড়ে যায়। এসময় চিৎকার শুনে একজন ইমাম এগিয় এসে আমার ভাইকে উদ্ধার করে আমাদের ফোনে জানান।

তবে পুলিশ বলছে বর আব্দুল কাদিরের শারীরিক সমস্যা রয়েছে। 

সূত্র জানায়, প্রেমের সম্পর্কে ছয় মাস পূর্বে আঁখি নামে এক মেয়েকে গোপনে বিয়ে করেন আব্দুল কাদির। বিষয়টি জানতে পেরে আব্দুল কাদেরের পরিবার প্রথমে তাদের মেনে না নিলেও ছেলের জেদের কাছে হার মানেন তারা। পরে শুক্রবার রাতে ওই মেয়েকে আনুষ্ঠানিকভাবে বরের বাড়িতে আনা হয়। এক পর্যায়ে রাত ১২টার পর আঁখিকে রেখে বাথরুমে যাওয়ার কথা বলে আব্দুল কাদির ঘর থেকে বের হন।

এদিকে, দীর্ঘ সময় পরও আব্দুল কাদির ফিরে না এলে কনের কাছ থেকে বিষয়টি জানতে পেরে পরিবারের লোকজন তাকে খুঁজতে বের হয়। এ সময় বাথরুমের কাছে আব্দুল কাদিরের গায়ের গেঞ্জি ও পায়ের জুতা পাওয়া গেলেও তাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় আব্দুল কাদিরের বড় ভাই নুর ইসলাম শনিবার জুড়ী থানায় একটি জিডি করেন।

বিষয়টি নিয়ে জুড়ী থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম সরদার জানান, বর আব্দুল কাদিরের শারীরিক সমস্যা আছে। তাই নিজেই আত্মগোপনে চলে গিয়েছিলো।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue