শনিবার, ২৫ মে, ২০১৯, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

বিএনপির শীর্ষ নেতাদের যে ৫ পরামর্শ দিয়েছে ভারত!

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২০ মার্চ ২০১৯, বুধবার ০২:০৯ পিএম

বিএনপির শীর্ষ নেতাদের যে ৫ পরামর্শ দিয়েছে ভারত!

ঢাকা : বাংলাদেশে ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দায়িত্ব নেয়ার পর বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠনের সঙ্গে সৌজন্য বৈঠকে মিলিত হচ্ছেন। এরই ধারাবাহিকতায় তিনি বৈঠক করেছেন বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের কয়েকজন নেতা-কর্মীদের সঙ্গে।

এ বিষয় ভারতীয় দূতাবাসের দায়িত্বশীল সূত্র থেকে জানা যায়, নবনিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার দায়িত্ব গ্রহণের পর সম্প্রতি বিএনপির শীর্ষনেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।

তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এবং ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু।

সূত্র থেকে জানা যায়, এসময় রিভা গাঙ্গুলি তার সরকারের পক্ষ থেকে বিএনপিকে ৫টি পরামর্শ দিয়েছে।

পরামর্শগুলো হলো-

১. বিএনপির নির্বাচিত সদস্যদের শপথ গ্রহণ ও সংসদ কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করা। তাদের কন্ঠস্বর যত কমই হোক না কেন, সংসদকেই সরকারের সমলোচনার মূল কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা।

২. বিএনপির সাংগঠনিক কাঠামো পরিবর্তন করে পরিবারতন্ত্রের অবসান ঘটিয়ে বিএনপিকে সত্যিকার একটি গণতান্ত্রিক দল হিসেবে পুনর্গঠন করা।

৩. স্বাধীনতাবিরোধী জামায়তের সঙ্গে বিএনপির সম্পর্কচ্ছেদের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া।

৪. আদালতে সাজাপ্রাপ্ত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে বিএনপির সকল ধরণের কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দেওয়া।

৫. আন্দোলন-সংগ্রাম না করে বিএনপি যেন জনগণের স্বার্থ এবং জনগনের ইস্যুতে আন্দোলন এবং কর্মসূচি যেন গ্রহণ করে, সে ব্যাপারে পদক্ষেপ গ্রহণ করা।

সূত্র থেকে আরো জানায়, রিভা গাঙ্গুলির দেওয়া পরামর্শগুলোর মধ্যে সবগুলো বিবেচনা করবে বলে বিএনপি নেতৃবৃন্দ জানালেও তারেক রহমানের বিষয়টিতে তারা দ্বিমত পোষণ করেন।

এ ব্যাপারে বিএনপি নেতারা জানান, তাদের দলে জিয়া পরিবার ভীষণ জনপ্রিয়। তাদের কাউকে বাদ দিলে বিএনপির তৃণমূল নেতারা আপত্তি তুলবে।

তবে বিএনপির সিনিয়র নেতারা জানান, তারা ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক রাখতে চায়। কিন্তু ভারত যদি বাংলাদেশে একদল কেন্দ্রীক সম্পর্ক স্থাপনের নীতি অবলম্বন করে তাহলে তখন বিএনপিকে ভারত বিরোধী অবস্থান নিতেই হবে।

এ ব্যাপারে ভারতীয় দূতাবাসের পক্ষ থেকে রাষ্ট্রদূত কি বলেছেন, তা স্পষ্ট নয়। তবে একটা বিষয় স্পষ্ট হয়েছে যে, ভারত সবগুলো রাজনৈতিক দলকে সংসদে আনার জন্য কূটনৈতিক প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue