বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০২০, ১০ মাঘ ১৪২৬

বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে এবার ত্রিপুরায় ইন্টারনেট সেবা বন্ধ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, বুধবার ১০:৪৪ এএম

বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে এবার ত্রিপুরায় ইন্টারনেট সেবা বন্ধ

ঢাকা : ভারতের লোকবসভায় পাস হয়েছে বিতর্কিত নাগরিক সংশোধনী বিল। বিলটি পাস হওয়ার আগেও অনেকে বিরোধিতা করেছেন। আবার পাস হওয়ার পরও এর প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছে লাখো মানুষ। নাগরিক সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে আসাম, ত্রিপুরাসহ বিভিন্ন রাজ্য। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে এবার ইন্টারনেট ও এসএমএস সেবা বন্ধ করে দিল বিজেপি নেতৃত্বাধীন ত্রিপুরা রাজ্য সরকার।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, ত্রিপুরায় গতকাল মঙ্গলবার থেকে ৪৮ ঘণ্টার জন্য ইন্টারনেট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তার উত্তর-পূর্বের ছাত্র সংগঠনের (নেসো) ডাকা ১১ ঘণ্টার হরতালকে কেন্দ্র করে ত্রিপুরায় সহিংসতা শুরু হয়। এ সহিংসতা রুখতেই ইন্টারনেট বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় বিপ্লব দেবের সরকার।

মঙ্গলবার সকাল থেকেই বিক্ষোভকারীরা ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলায় জড়ো হতে থাকেন।  তারা কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে শুরু করে।  এরপর এ বিক্ষোভ রুখতেই ইন্টারনেট ও এসএমএস সেবা বন্ধ করে দেয় ত্রিপুরা সরকার।  

অন্যদিকে, নাগরিক সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে ত্রিপুরার মাধববাড়ি এলাকায় করা বিক্ষোভে কমপক্ষে ২৩ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে ছয় জন পুলিশ সদস্যও রয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত সোমবার লোকসভায় ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বিলটি পেশ করেন। পরে ৯০ মিনিট ধরে চলা উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ের পর ২৯৩-৮২ ভোটের ব্যবধানে এটি পাস হয়। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে বিলটিকে ‘মুসলিমবিরোধী’ আখ্যা দেওয়া হয়েছে।

সোনালীনিউজ/এএস

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue