রবিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৮, ৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সম্মেলনে দলীয়করণ, শিক্ষক সমিতির ক্ষোভ

রাবি প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২০ অক্টোবর ২০১৮, শনিবার ০৭:১২ পিএম

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সম্মেলনে দলীয়করণ, শিক্ষক সমিতির ক্ষোভ

রাবি : বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সম্মেলনে রাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ আরো অনেকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। এ ঘটনায় ফেডারেশনে দলীয়করণের অভিযোগ উঠেছে। শনিবার (২০ অক্টোবর) বিকেলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এহেন কর্মকাণ্ডকে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে রাবি শিক্ষক সমিতি।

এ প্রসঙ্গে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর মামুনুর রশীদ ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, শিক্ষক ফেডারেশনের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কোনো ধরনের সম্পর্ক থাকার কথা না। ফেডারেশন গঠিত হয়েছে শিক্ষক সমিতির সমন্বয়ে। কিন্তু জাতীয়তাবাদী ও ইসলামী আদর্শে বিশ্বাসী শিক্ষক প্যানেল হওয়ায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক সমিতির নির্বাচিত প্রতিনিধিদের দাওয়াত পত্র দেয়া হয়নি। যে কারণে এ সম্মেলন তার মর্যাদা হারিয়েছে। ইতিপূর্বে কোনো সরকারের আমলেই এমন নগ্ন দলীয়করণের নজির নেই। এ সম্মেলন সত্যিকার অর্থে শিক্ষক ফেডারেশনের সম্মেলন নয়। এটা একটি দলীয় সম্মেলনের রূপ নিয়েছে।’

রাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. মো. আমজাদ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মামুনুর রশীদ স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশন শনিবার (২০ আক্টোবর) বিকেল ৪টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদেরকে (শিক্ষক সমিতির তালিকাভুক্ত) নিয়ে সম্মেলন করতে যাচ্ছে। বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশন মূলত সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সমন্বয়ে গঠিত একটি সংগঠন এবং শিক্ষক সমিতির প্রতিনিধি দ্বারা পরিচালিত হয়।

এ সংগঠনের সার্বিক কর্মকাণ্ডে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি প্রত্যক্ষভাবে অংশগ্রহণ করে থাকেন। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি যে, এই সম্মেলনে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতিকে উপেক্ষা করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সম্মেলনে অংশগ্রহণের জন্য শিক্ষকদের একটি তালিকা প্রস্তুত করে তাদের নিকট পাঠাতে বলে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাদের মনোনীত ও দলীয় আদর্শে বিশ্বাসী শিক্ষকদের একটি তালিকা ফেডারেশনের নিকট পাঠায়। সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সম্মিলিত অনুষ্ঠান হওয়া সত্ত্বেও ফেডারেশন সম্পূর্ণ দলীয়করণের মাধ্যমে এই সম্মেলনে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের কোটারিভুক্ত শিক্ষকদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেন, যা কিনা সাধারণ শিক্ষকদের মাঝে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি করেছে।

উল্লেখ্য, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ বেশ কিছু সদস্যকেও এই সম্মেলনে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। ফেডারেশনের এহেন আচরণে আমরা মর্মাহত এবং এই ধরনের কার্যকলাপের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। ভবিষ্যতে ফেডারেশনকে দলীয় সংকীর্ণতার ঊর্ধ্বে উঠে শিক্ষকদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম যথাযথভাবে পালনের জন্য আমরা অনুরোধ করছি।

২৪ এপ্রিল ২০১৮ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে জাতীয়তাবাদী ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী শিক্ষক গ্রুপ (সাদা দল) থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ গুরুত্বপূর্ণ ৬টি পদে জয়ী হন। শিক্ষক সমিতির সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হন বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের সাবেক ডীন ও ফাইন্যান্স বিভাগের অধ্যাপক আমজাদ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ফার্মেসী বিভাগের অধ্যাপক মামুনুর রশীদ।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/এইচএআর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue