মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল, ২০১৯, ১০ বৈশাখ ১৪২৬

বৈশাখী খাবারের বিশেষ সুযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১২ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার ০২:৩৮ পিএম

বৈশাখী খাবারের বিশেষ সুযোগ

ঢাকা : ভোজনরসিক বাঙালিকে এই পহেলা বৈশাখে বাংলার বিশেষ আঞ্চলিক খাবার ঘরে বসেই খাওয়ার সুযোগ দিচ্ছে হাঙ্গরিনাকি ডটকম। নববর্ষকে সামনে রেখে আগামী ১১ এপ্রিল থেকে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত টানা ১০ দিনব্যাপি চলবে এই আয়োজন। এতে ঢাকাতে নিজের ঘরে বসেই দেশের ৬টি ভিন্ন ভিন্ন জেলার ৬টি বিখ্যাত খাবারকে চেখে দেখার এক অপূর্ব সুযোগ মিলবে।

হাঙ্গরিনাকির এই বিশেষ বৈশাখী ইভেন্টের যেকোনো খাবার অর্ডার করলেই গ্রাহকরা পাবেন একদম ফ্রি ডেলিভারি!

এই ছয়টি খাবারের মধ্যে থাকছে চুক নগরের চুই ঝাল মাংস, চট্টগ্রামের মেজবানি গোশত ও নলা, কক্সবাজারের লইট্টা ফ্রাই, সিলেটের সাতকরা দিয়ে গরুর গোশত, রাজশাহীর কালাই রুটি, বরিশালের ঘোলমুড়ি।

বলাই বাহুল্য বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের খুলনা, যশোর, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট এবং নড়াইল এলাকায় এই চুইঝাল মসলা হিসেবে খুবই জনপ্রিয়। মাংসের স্বাদ বাড়াতে চুই ঝালের বিকল্প নেই। গরুর মাংসেই চুই বেশি ব্যবহার করা হয়, তবে খাসির মাংসেও ব্যবহার করা যায়।

অন্যদিকে অতিথিপরায়ন চট্টগ্রামের মানুষদের ঐতিহ্যই মেজবানি করা বা মেহমানদারি করা। সেই মেজবানিতে যে গরুর মাংস রান্না করা হয় তার স্বাদ ও রন্ধন পদ্ধতিই আলাদা। সেই আলাদা স্বাদের মেজবানি গরুর গোশতের তুলনা নেই বললেই চলে। ঢাকায় বসেই চাটগাঁর মেজবানি গরুর গোশতের স্বাদ আপনাকে দিতে রয়েছে হাঙ্গরিনাকির এই বিশেষ আয়োজন।

লইট্ট্যা মাছের শুঁটকি ভ‚না তো অনেকেরই প্রিয় খাবার, কিন্তু লইট্টা ফ্রাইও কিন্তু কম মজাদার নয়! ডুবো তেলে ভাজার পর মাছগুলো হয়ে যায় দেখতে সোনালি আর খেতে হয় দারুন মচমচে! খিচুড়ি, পোলাও বা সাদা-ভাতের সঙ্গে চোখ বন্ধ করে লইট্টা ফ্রাই খেয়ে ফেলা যায়। এটিও চট্টগ্রাম কক্সবাজারের ঐতিহ্যবাহী খাবার। অতিথি আপ্যায়নে থাকেই। তাই হাঙ্গরিনাকি এই বৈশাখে বাড়িতে পৌঁছে দেবে এই খাবার।

সিলেট মানেই সাতকড়া। লেবু জাতীয় এই ফল দিয়ে রান্না করা গরুর মাংস ও বড় মাছের জুড়ি নেই। সেটিই থাকছে হাঙ্গরিনাকির বৈশাখ আয়োজনে।

রাজশাহী এবং চাপাঁইনবাবগঞ্জ তথা সারা উত্তরবঙ্গের অন্যতম জনপ্রিয় এবং ঐতিহ্যবাহী খাবার হলো কালাইয়ের রুটি। কালাইয়ের রুটির স্বাদ সারা দেশের মানুষের প্রশংসা কুড়িয়ে বিদেশীদের কাছেও এখন বেশ সুনাম করছে। রাজশাহী অঞ্চলের শুধু ঐতিহ্য হিসেবেই নয়, বরং এটা এই অঞ্চলের মানুষদের প্রতিদিনের ডাল ভাতের মতই অতি পরিচিত ও দৈনন্দিন একটি খাবার। এটিও পাবেন এই বৈশাখে। সঙ্গে নানা পদের ভর্তা ফ্রি।

অঞ্চলভিত্তিক খাবারে বরিশালের ঘোলমুড়ি অন্যতম। স্থানীয়ভাবে এটি বেশ জনপ্রিয়, সস্তা ও মুখরোচক খাবার। এতে একই সাথে দুধ, গুড় এবং মুড়ির স্বাদ পাওয়া যায়, যা আমাদের গ্রাম বাংলার অন্যতম ব্যতিক্রমধর্মী ও জনপ্রিয় খাবার।

১৬০ থেকে ৬০ টাকার মধ্যে এই খাবারগুলো প্রি অর্ডার করা যাবে। প্রি অর্ডার করার জন্য ভিজিট করুন হাঙ্গরিনাকির ওয়েবসাইট। নূন্যতম ১০০ টাকার খাবার অর্ডার করতে হবে। এছাড়া হাঙ্গরিনাকির মোবাইল অ্যাপটি ডাউনলোড করে অর্ডার করে দিন আপনার পছন্দ মতো যেকোনও খাবার।

সোনালীনিউজ/এমটিআই