সোমবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬

ব্যাটিং কিভাবে করতে হয় শেখালেন তাইজুল

ক্রীড়া ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ৩১ জুলাই ২০১৯, বুধবার ১০:২৫ পিএম

ব্যাটিং কিভাবে করতে হয় শেখালেন তাইজুল

ঢাকা: প্রথম সারির সবাই ব্যর্থ। শুধু ওপেনার সৌম্য হাঁকিয়েছেন অর্ধশকত। আর শেষ দিকে নেমে ৩৯ রান করে অপরাজিত ছিলেন তাইজুল ইসলাম। তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ হেরে এরই মধ্যে সিরিজ হেরেছে বাংলাদেশ দল। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আজ সিরিজের শেষ ম্যাচে মাঠে নামে বাংলাদেশ। টস জিতে বাংলাদেশকে বোলিংয়ে পাঠান লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুণারত্নে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৯৪ রান করে শ্রীলঙ্কা।

২৯৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। মাত্র ২ রান করে রাজিথার বলে পেরেরার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন তামিম। এর ফলে আবার ব্যর্থ হলেন তামিম। 

তামিম বিদায় নিলে দলকে এগিয়ে নেয়ার চেস্টা করের অনেক দিন পর দলে সুযোগ পাওয়া এনামুল। কিন্তু কাসুন রাজিথা বলে মাত্র ১৪ রান করে আভিশকা ফার্নান্ডো হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান। এরপর ক্রিজে আসেন মুশফিক। আগে ম্যাচে ৯৮ রান করলেও বিপর্যয়ের মুখে ১০ রান করে ফিরে যান তিনিও। এতে চরম বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। 

বিপর্যয়ে না কাটতেই দাসুন শানাকার বলে ৪ রান করে ফিরে যান মিঠুন। মিঠুন যেতে না যেতেই ৯ রান করে শানাকার বলে ফিরে রিয়াদ। সম্প্রতি তার ফর্ম নিয়ে সমালোচনা করলেও এই নিয়ে তার মাথা ব্যথা নেই বললেই চলে। 

আগের ম্যাচ ভালো করা সাব্বির করছেন মাত্র ৭ রান। ৮ রান করে নিজেই উইকেটটি যেন উপহার দিয়ে গেলেন মিরাজ। তবে শেষ ভরসা ছিলেন সৌম্য সরকার। একপ্রান্ত আগলে রেখে হাফসেঞ্চুরি করেছেন দীর্ঘ দিন রান না পাওয়া সৌম্য। কিন্তু কোন সঙ্গী না থাকায় ৬৯ রানে বোল্ড হয়ে ফিরে যান ধনঞ্জয়া বলে। এরপর স্টাম্পিং হয়ে ফিরে যান শফিউল ইসলাম। 

শেষ দিকে তাণ্ডব চালিয়েছিলেন তাইজুল ইসলাম। ২৮ বলে ৫ চার ও ১ ছক্কায় ৩৯ রান করে অপরাজিত ছিলেন। রুবেলে রান আউট হলে ১৭২ রানে থেমে যায় বাংলাদেশের ইনিংস। আর ১২২ বিশাল ব্যবধানে হেরে হোয়াইটওয়াশ হয় বাংলাদেশ। 

এই ম্যাচে ব্যাট কিভাবে করতে হয় তা বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের শেখালেন তাইজুল। পরপর চার-ছক্কা হাঁকিয়েছেন। কিন্তু আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাকে। ১১ রানের জন্য করতে পারেননি হাফসেঞ্চুরিটি। 

এর আগে লঙ্কানদের হয়ে সর্বোচ্চ ৮৭ রান করেন ম্যাথিউস। এছাড়াও মেন্ডিস ৫৪, করুণারত্নে ৪৬, কুশল পেরেরা ৪২, শানাকা ৩০, সেহান ১৩ রান করে ফিরেন। বাংলাদেশের হয়ে সৌম্য, শফিউল ৩টি করে, রুবেল ও তাইজুল ১টি করে উইকেট শিকার করেন।

বাংলাদেশ একাদশ : তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, এনামুল হক বিজয়, সাব্বির রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, শফিউল ইসলাম, রুবেল হোসেন।

শ্রীলঙ্কা একাদশ : দিমুথ করুনারত্নে (অধিনায়ক), আভিশকা ফার্নান্ডো, কুশল পেরেরা, কুশল মেন্ডিস, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ, শেহান জয়সুরিয়া, দাসুন শানাকা, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, আকিলা ধনঞ্জয়া, কাসুন রাজিথা, লাহিরু কুমারা।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ