রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

ভারতের জাতীয় নির্বাচনে ভোট গ্রহনের শেষ ধাপ আজ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৯ মে ২০১৯, রবিবার ০১:৩৬ পিএম

ভারতের জাতীয় নির্বাচনে ভোট গ্রহনের শেষ ধাপ আজ

ঢাকা : ভারতের জাতীয় নির্বাচনের ৭ম অর্থাৎ শেষ ধাপের ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে রোববার (১৯ মে) সকাল থেকে। এ দফায় দেশটির সাত রাজ্যের ৫৯টি সংসদীয় আসনে ভোট হচ্ছে। এই নির্বাচনে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) ও কংগ্রেসসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ৯১৮ জন এবং একজন স্বতন্ত্র প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণে ১০ কোটির বেশি ভোটার ভোট দেবেন।

৭ম ধাপের নির্বাচনে বিহারে আটটি, হিমাচলে চারটি, ঝাড়খণ্ডে তিনটি, মধ্যপ্রদেশের আটটি, পাঞ্জাব ও উত্তর প্রদেশের প্রতিটিতে ১৩টি করে, পশ্চিমবঙ্গে ৯টি এবং চন্ডিগড়ে ১টি আসনে ভোট হচ্ছে।

তবে সব কিছু ছাপিয়ে সবার দৃষ্টি এখন বারানসির দিকে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ওই আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বিজেপির শক্ত ঘাঁটি হিসেবে এ আসনটি পরিচিত। এ আসনে সমাজবাদী দল থেকে শালিনি যাদব, কংগ্রেস থেকে অজয় রায় এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী আতিক আহমেদ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

২০১৪ সালের নির্বাচনে এই আসনে নরেন্দ্র মোদি ৩,৭০০০০ ভোটের ব্যবধানে অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে পরাজিত করেন।

২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের ৭ম ও শেষ পর্বের এই নির্বাচনের প্রচারণা পশ্চিমবঙ্গ ছাড়া সব রাজ্যেই ভালভাবে শেষ হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস ও দলের প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপি কর্মীদের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠানে কর্তৃপক্ষ রাজ্যে অতিরিক্ত নিরাপত্তা কর্মী নিয়োগ করেছে।

ভারতের নির্বাচনের এই শেষ পর্বের ভোটে দেশটির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ এবং চলচ্চিত্র অভিনেতাসহ একাধিক আলোচিত নেতার ভাগ্য নির্ধারণ হবে।

এ নির্বাচনে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিদের মধ্যে মনোজ সিনহা (বিজেপি), রাম কৃপাল যাদব (বিজেপি), আশবানি কুমার চৌবে (বিজেবি), বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ কিরণ খের (বিজেপি), হারসিমরাট বাদল (এসএডি), প্রীনিত কাউর (কংগ্রেস), অভিনেতা শত্রুঘ্ন সিনহা (কংগ্রেস) এবং সানি দেওল (বিজেপি), ঝাড়খন্ডের তিন বারের মুখ্যমন্ত্রী শিবু সোরেন, পশ্চিম বঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর ভাতিজা অভিষেক ব্যানার্জী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ভারতের নির্বাচন কমিশন গত ১০ মার্চ ৫৪৩টি আসনে লোকসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন। ১১ এপ্রিল প্রথম পর্ব নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

এরপর ১৮ এপ্রিল দ্বিতীয় পর্ব, ২৩ এপ্রিল তৃতীয় পর্ব, ২৯ এপ্রিল চতুর্থ পর্ব , ৬ মে পঞ্চম পর্ব, ১২ মে ৬ষ্ঠ পর্ব ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৩ মে নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা করা হবে। বর্তমান পার্লামেন্টের মেয়াদ ৩ জুন শেষ হবে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue