শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

ভারত মাতাবেন কেটি পেরি

বিনোদন ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৪ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার ০২:৪০ পিএম

ভারত মাতাবেন কেটি পেরি

ঢাকা : আবারো ভারতে এসেছেন হলিউডের পপ তারকা কেটি পেরি। এবার তার ভারত সফরের উদ্দেশ্য একটি মিউজিক ফেস্টিভ্যালে অংশ নেওয়া। মঙ্গলবার সকালে ভারতের মাটিতে নামেন কেটি। ১৬ নভেম্বর মুম্বাইয়ে অনুষ্ঠেয় ওই মিউজিক ফেস্টিভ্যালে তার পারফর্ম করার কথা রয়েছে।

তার আগে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন জনপ্রিয় এই পপ তারকা।

তিনি বলেন, ‘ভারতীয় দর্শকের সামনে পারফর্ম করার জন্য মুখিয়ে আছি। হাতে সময় আছে, মুম্বাই শহরটা ঘুরে দেখব। এখানকার স্থানীয় খাবার চেখে দেখতে চাই। সেলিব্রেটি হয়ে হোটেলে বসে রুম সার্ভিস অর্ডার করতে চাই না।’

সংবাদ সস্মেলনে কেটির সঙ্গে ছিলেন বলিউড অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ। তিনি কেটির মিউজিক শোটি উপস্থাপনা করবেন। জ্যাকলিন সম্পর্কে কেটির বক্তব্য, ‘ওকে বলেছি শপিংয়ে নিয়ে যেতে আর স্ট্রিট ফুড খাওয়াতে।’

এদিকে কেটির সৌজন্যে পার্টি দেওয়ার কথা রয়েছে পরিচালক ও প্রযোজক করণ জোহারের।

এই নিয়ে তিনবার ভারতে এলেন হলিউড সুপারস্টার কেটি পেরি। প্রথমবার জয়পুরে এসেছিলেন নিজের ডেস্টিনেশন ওয়েডিংয়ে, যদিও রাসেল ব্র্যান্ডের সঙ্গে গায়িকার সেই বিয়ে অনেক আগেই ভেঙে গেছে। দ্বিতীয়বার এসে মেডিটেশন শিখেছিলেন পপ স্টার। এবার শোনাবেন গান।

মার্কিন গায়িকা কেটি পেরি। শৈশবে তিনি খ্রিস্টান যাজক অভিভাবক দ্বারা পালিত হন। তিনি শৈশবে গোস্পেল সংগীত শুনতেন এবং শিশু হিসেবেই চার্চে গান করতেন। মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে জিইডি পরীক্ষা দেওয়ার পর তিনি সংগীতকে পেশা হিসেবে বেছে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

২০০১ সালে তিনি নিজের নামে প্রথম সংগীত অ্যালবাম প্রকাশ করেন। অ্যালবামটিতে পেরি প্রধানত গোস্পেল ধারার গান করেছেন। পরে ২০০৪ থেকে ২০০৫ পর্যন্ত তিনি তার দ্বিতীয় অ্যালবাম ও টিম ম্যাট্রিক্সের সঙ্গে একটি মিশ্র অ্যালবামের কাজ করেন, তবে অ্যালবাম দুটি শেষ পর্যন্ত প্রকাশিত হয়নি।

২০০৭ সালে পেরি ক্যাপিটল মিউজিক গ্রুপের সঙ্গে চুক্তি করেন এবং তার নাম পরিবর্তন করে কেটি পেরি রাখেন। এ সময় তিনি ইন্টারনেটে তার প্রথম একক সংগীত ‘ইউর সো গে’ প্রকাশ করেন। এই গান তাকে কিছুটা খ্যাতি এনে দিলেও গানটি চার্টে অন্তর্ভুক্ত হয়নি।

২০০৮ সালে তিনি সর্বাধিক খ্যাতি অর্জন করেন তার দ্বিতীয় একক সংগীত প্রকাশের মাধ্যমে। গানটির নাম ‘আই কিসড এ গার্ল’। এটি আন্তর্জাতিক খ্যাতি অর্জন করে এবং বিভিন্ন দেশের টপ চার্টে স্থান করে নেয়। পেরির প্রথম প্রধান অ্যালবাম ওয়ান অব দ্য ভয়েস একই সালে প্রকাশিত হয়। অ্যালবামটি ওই বছরের বিশ্বের তেত্রিশতম সর্বোচ্চ বিক্রীত অ্যালাবামে পরিণত হয়। রেকর্ডিং ইন্ডাস্ট্রি অ্যাসোসিয়েশন অব অ্যামেরিকা অ্যালবামটিকে প্লাটিনাম সনদ দেয়।

বিলবোর্ড কর্তৃক প্রকাশিত ২০০০-১০ দশকের সেরা ১০০ শিল্পীর তালিকায় পেরি ৯৭তম স্থান দখল করেন। তিনি অদ্ভুত ধরনের পোশাক পরিধানের মাধ্যমে পরিচিতি লাভ করেন। তার পরবর্তী অ্যালবাম টিনএজ ড্রিম ২৪ আগস্ট ২০১০ সালে যুক্তরাষ্ট্র কানাডায় প্রকাশিত হয়। অ্যালবামটি ৩০ আগস্ট বিশ্বব্যাপী প্রকাশিত হয়। বিলবোর্ড ২০০ তালিকায় অ্যালবামটি শীর্ষস্থান দখল করে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue