শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪ আশ্বিন ১৪২৭

মজনুকে গ্রেফতার যা বললেন আসিফ নজরুল

নিউজ ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৯ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার ০৭:০৭ পিএম

মজনুকে গ্রেফতার যা বললেন আসিফ নজরুল

ঢাকা: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল রাজধানীর কুর্মিটোলায় রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে ধ র্ষণের ঘটনায় ধ র্ষককে গ্রেফতার করায় সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

তিনি একই সঙ্গে গত চার বছরেও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী সোহাগী জাহানের তনুর ধ র্ষক ও হত্যাকারী গ্রেফতার না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তিনি।

বুধবার (৮ জানুয়ারি) রাতে নিজের ফেসবুক পেজে এক স্ট্যাটাসে ঢাবি অধ্যাপক বলেন, ‘দুদিনের মধ্যে ঢাবি ছাত্রীর ধ র্ষক মজনুকে ধরা গেছে। ধন্যবাদ সরকারকে। কিন্তু সঙ্গে সঙ্গে কিছু প্রশ্ন তোলাও জরুরি এখন।’

তিনি বলেন, কুমিল্লায় তনু ধ র্ষণ আর হত্যার ঘটনা ঘটেছে প্রায় চার বছর আগে। সে ঘটনার পা শবিকতা স্তদ্ধ করেছিল গোটা সমাজকে। মজনুকে এক লহমায় ধরা গেলে, তনুর ধ র্ষক/হ ত্যাকারীকে ধরা গেল না কেন আজো?’ এটা কি মজনু আর তনুর ধ র্ষকের শ্রেণিচরিত্র ভিন্ন বলে? মজনু তুচ্ছাতিতুচ্ছ একজন ব্যক্তি। তনুর হ ত্যাকারী নিশ্চয় এমন তুচ্ছ নয়। সে বা তারা নিশ্চয় ক্ষমতাবলয়ের কেউ। তা নাহলে এতো ভিন্নতা কেন?’

‘মজনুকে গ্রেফতার সরকারের সামর্থ্যের প্রমাণ হলে এটা অন্যান্য ক্ষেত্রে দেখানো যায় না কেন? কেন হয় না তনুর ধ র্ষক গ্রেফতার? কেন হয় না আরও বহু ধ র্ষক গ্রেফতার? কেন??’

গেল ২০১৬ সালের ২০ মার্চ সন্ধ্যায় টিউশনি করে বাসায় ফেরার পথে কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকায় পা শবিক নির্যাতনের পর হ ত্যা করা হয় তনুকে। পরে রাত সাড়ে ১০টার দিকে ময়নামতি সেনানিবাসের পাওয়ার হাউসের পানির ট্যাংক সংলগ্ন স্থানে তার মৃতদেহ পাওয়া যায়। নিহত তনু ময়নামতি ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী ইয়ার হোসেনের মেয়ে। টিউশনি করে পড়াশোনার খরচ যোগাতেন তনু। তাদের গ্রামের বাড়ি মুরাদনগর উপজেলার মির্জাপুরে।

মেয়েকে হ ত্যার ঘটনায় গত সোমবার কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় অজ্ঞাতদের নামে হ ত্যা মামলা দায়ের করেন নিহত তনুর বাবা। তবে ওই ঘটনার এখনও হ ত্যা রহস্য উদঘাটন হয়নি। তবে হ ত্যার রহস্য বের করতে পুলিশের একাধিক টিম ছাড়াও জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) একটি দল কাজ করছে বলে জানানো হয়েছে। আলোচিত এ হ ত্যাকাণ্ডের তদন্তে র‌্যাবও তৎপর হয়েছে।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ