সোমবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২০, ৭ মাঘ ১৪২৬

চট্টগ্রাম-৮ আসনে উপনির্বাচন

মনোনয়নপত্র বাতিল জাপার প্রার্থী বাবলুর

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, রবিবার ০৫:৪০ পিএম

মনোনয়নপত্র বাতিল জাপার প্রার্থী বাবলুর

চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপনির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী জিয়া উদ্দিন আহমেদ বাবলুসহ দুজনের মনোনয়নপত্র বাতিল করেছে জেলা আঞ্চলিক নির্বাচন অফিস।

রোববার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুর ১টার দিকে চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপনির্বাচনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের শেষ দিনে তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।

ঋণখেলাপির দায়ে জাতীয় পার্টির সাবেক এই সংসদ সদস্য জিয়া উদ্দিন আহমেদ বাবলুর মনোনয়নপত্র বাতিল এবং ত্রুটিপূর্ণ মনোনয়নপত্র দাখিলের কারণে গণফ্রন্টের উত্তম কুমার চৌধুরী চূড়ান্ত মনোনয়ন পাননি বলে জানান চট্টগ্রাম জেলা আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা হাসানুজ্জামান।

তিনি জানান, জিয়া উদ্দিন আহমেদ বাবলু এক ব্যক্তির ব্যাংকঋণের জিম্মায় ছিলেন। নির্দিষ্ট সময়ে ওই ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হন। নির্বাচনী আইনে বলা হয়েছে, যদি কেউ ব্যক্তিগত লোন নিয়ে থাকেন অথবা ব্যক্তিগত লোন নেয়ার ক্ষেত্রে জিম্মায় থাকেন তাহলে তাকে মানোনয়নপত্র জমাদানের ৭ দিন আগে সেই লোন পরিশোধ করতে হবে।

এক্ষেত্রে জনৈক ব্যক্তিটি লোন পরিশোধ করেছেন একদিন আগে, যা নির্বাচনী আইনের লঙ্ঘন। এ কারণে জিয়া উদ্দিন আহমেদ বাবলুর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। তবে যাচাই-বাছাইয়ের দিন থেকে পরবর্তী ৩ দিনের মধ্যে এ বিষয়ে আপিল করার সুযোগ রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ১২ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম-৮ (চান্দগাঁও-বোয়ালখালী) সংসদীয় আসনের উপনির্বাচনে মনোনয়ন ফরম জমা দেন জিয়া উদ্দিন আহমেদ বাবলু। বাবলুর হলফনামার তথ্য অনুযায়ী তার বার্ষিক আয় ১১ লাখ ৮৮ হাজার ৬১৫ টাকা।

অন্যান্য আয় আছে ৮২ হাজার ৫০০ টাকা। বাবলু নগদ ২৬ লাখ ৬৫ হাজার টাকার মালিক। তার ব্যাংক আমানত ১০ লাখ টাকা। আশিক গার্মেন্টসের ৩ হাজার শেয়ার বাবদ ৩ লাখ আর গাড়ি বাবদ ৫৭ লাখ টাকার অস্থাবর সম্পত্তির উল্লেখ রয়েছে তার হলফনামায়।

হাসানুজ্জামান জানান, এই উপনির্বাচনে ৮ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন। দুজনের মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়ায় ৬ জনের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়। তারা হলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) চেয়ারম্যান এস এম আবুল কালাম আজাদ, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের সৈয়দ মোহাম্মদ ফরিদ আহমদ, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ এমদাদুল হক, বিএনপির মনোনীত প্রার্থী আবু সুফিয়ান ও ন্যাপের বাপন দাশগুপ্ত।

চট্টগ্রাম-৮ আসনে সংসদ সদস্য ছিলেন জাসদের কার্যকরী সভাপতি মঈনউদ্দীন খান বাদল। গত ৭ নভেম্বর ভারতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হলে আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়।

সোনালীনিউজ/এএস

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue